• বিদেশ ডেস্ক
  • ১১ অক্টোবর ২০১৯ ১৬:১৯:৪১
  • ১১ অক্টোবর ২০১৯ ১৬:১৯:৪১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

তরুণ ইথিওপীয় প্রধানমন্ত্রী পেলেন শান্তির নোবেল

আবি আহমেদ। ছবি : সংগৃহীত

এ বছর শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার পেয়েছেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ। প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সঙ্গে শান্তিচুক্তির মাধ্যমে দীর্ঘ দিনের সীমান্ত সংঘাত অবসানে ভূমিকার জন্য তাকে এ স্বীকৃতি দিলো নোবেল কমিটি।

১১ অক্টোবর, শুক্রবার নরওয়ের রাজধানী অসলো থেকে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি শান্তিতে নোবেল পুরষ্কারবিজয়ী হিসেবে আবি আহমেদের নাম ঘোষণা করে। 

বিবিসি জানায়, দুই দশক আগে পূর্ব আফ্রিকার হতদরিদ্র দুই দেশ ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ার সীমান্তে ভয়াবহ এই সংঘাত শুরু হয়। শুরুর দুই বছরেই সেই যুদ্ধে লাখো মানুষ নিহত হয়।

২০০০ সালে দেশ দুটির মধ্যে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। তবে সীমান্তে এক ধরনের যুদ্ধাবস্থা বজায় থাকে। দীর্ঘদিন চলা এই সংঘাতে আরো বিপুলসংখ্যক মানুষের প্রাণ যায়।

২০১৮ সালের আগস্ট মাসে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী হন ৪৩ বছর বয়সী আবি আহমেদ। ক্ষমতায় আসীন হয়েই তিনি এই সংঘাত অবসানে পদক্ষেপ নেন। অবশেষে শান্তি চুক্তি কার্যকরের মাধ্যমে প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সঙ্গে দীর্ঘ এ সংঘাতের ইতি টানে ইথিওপিয়া।

নোবেল শান্তি পুরস্কারের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য মতে, এ বছর নোবেল পুরস্কারের জন্য জমা পড়েছিলো ৩০১টি মনোনয়ন। যে তালিকায় ছিলো ২২৩ জন ব্যক্তির নাম। এছাড়াও ৭৮টি প্রতিষ্ঠানের নামও শান্তির নোবেলের জন্য জমা পড়ে।

বাংলা/এসএ

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ইথিওপিয়া শান্তি নোবেল

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0186 seconds.