• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৫:৩৩:৪৪
  • ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৫:৩৩:৪৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

সেই ক্যাসিনো ক্লাবের চেয়ারম্যান রাশেদ খান মেনন

ছবি : সংগৃহীত

রাজধানীর ফকিরাপুলের যেই ক্লাবের ক্যাসিনোতে অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলার অভিযোগে ১৪২ জনকে র‌্যাব আটক করেছে সেই ইয়ংমেন্স ক্লাবের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান হলেন স্থানীয় এমপি ও ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ইয়ংমেন্স ক্লাবের ক্যাসিনোতে অভিযান চালিয়ে নারী-পুরুষসহ ১৪২ জনকে আটক করে র‌্যাব। তাদের ৬ মাস থেকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তিনি দাবি করেছেন, ক্লাবের ভেতরে জুয়ার আসর বসা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানতেন না। তিনি এটিকে ফুটবল ও ক্রিকেট খেলার ক্লাব হিসেবেই জানতেন।

ক্যাসিনোর আড়ালে ক্লাবটিতে মাদক ব্যবসা চলতো বলে জানা গেছে। অভিযানে ক্লাবটির ভেতর থেকে আনুমানিক ২০ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়।

তবে রাশেদ খান মেমন সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, এ ক্লাবের ভেতরে জুয়ার আসর বসতো এমন খবর তার জানা ছিল না। তিনি ফুটবল ও ক্রিকেট খেলার ক্লাব হিসেবেই সেটাকে জানতেন এবং সেই কারণেই তাদের অনুরোধে চেয়ারম্যান হয়েছেন। তবে একবারের বেশি এই ক্লাবে যাননি তিনি।

রাশেদ খান মেনন দাবি করেছেন, মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী সাব্বির এ ক্লাবটিরও সাধারণ সম্পাদক। হাজী সাব্বিরই তাকে ওই ক্লাবে নিয়ে গিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিলেন।

ক্লাবটিতে র‌্যাবের অভিযান পরিচালনার পর দেখা যায়, এর একটি কক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও সরকার প্রধান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ঝোলানো। এর বিপরীত পাশের দেয়ালে ঝোলানো রাশেদ খান মেননের ছবি।

এছাড়াও একটি ক্রেস্ট প্রদান বা গ্রহণ করছেন তিনি এমন একটি ছবিও ঝুলছে সেখানে। আটকদের একজন জানান, ওটা ক্লাবের চেয়ারম্যানের কক্ষ।

প্রথমে সাংবাদিকদের কাছে ক্লাবের চেয়ারম্যান থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেন মেনন। তবে সেখানে তার ছবি থাকার কথা উল্লেখ করা হলে এ তথ্য স্বীকার করেন তিনি। অবশ্য বলেন, ইয়ংমেন্স ক্লাব হিসেবে তিনি সেটাকে চেনেন না, এটাকে ফকিরাপুল ক্লাব হিসেবে তিনি জানেন।

তিনি বলেন, আমি জানি তাদের ফুলবল টিম আছে। ক্রিকেট খেলে। আমাকে ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাজী সাব্বির সেখানে একদিন নিয়ে যায়। এবং বলা হয় আপনি ক্লাবের চেয়ারম্যান থাকবেন। আমি বলেছিলাম ঠিক আছে। ব্যাস ওইটুকুই। আমি এরপর আর কখনও সেখানে যাইনি।

প্রসঙ্গত ২০১৬ সালের ১৯ জুন ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাবের ৩১ সদস্যের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়। এতে খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে সভাপতি ও হাজী মো. সাব্বির হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

ফকিরেরপুলের এই ক্লাবটির প্যাভিলিয়নে কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় ওই নতুন কমিটি অনুমোদনের পাশাপাশি তৎকালীন বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপিকে সর্বসম্মতিক্রমে ক্লাবের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0199 seconds.