• ১৬ জুলাই ২০১৯ ২১:১৯:০৬
  • ১৬ জুলাই ২০১৯ ২১:১৯:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

পার্কে ঘুরছিলেন শিক্ষার্থীরা, ধরে থানায় পাঠালেন এমপি

ছবি : ফেসবুক থেকে

আসিফ আল আজাদ :

নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের আওয়ামী লীগ সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরীর ফেসবুক আইডি থেকে অভিভাবকদের উদ্দেশ্য করে একটি পোস্ট দেয়া হয়েছে। পোস্টের সাথে দেয়া হয়েছে পাঁচটি ছবি।

ছবিতে দেখা যায়, একটি পার্কে সংসদ সদস্যকে পুলিশসহ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে। পরের একটা ছবিতে শিক্ষার্থীদের পুলিশ ভ্যানে বসে থাকতে দেখা যায়।

জানা যায়, মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দুপুরে একরামুল করিম চৌধুরী এমপি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন যাতে তিনি লিখেন, ‘অভিভাবকদের বলছি আপনার সন্তানের খোঁজ খবর নিন, স্কুল কলেজ চলাকালীন সময়ে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে পার্কে ঘুরাঘুরি করছে কিনা খবর নিন, কোথায় যাচ্ছে লেখাপড়ায় করছে কিনা খেয়াল রাখুন,স্পষ্টভাবে বলছি স্কুল কলেজ চলাকালীন সময়ে কোনো শিক্ষার্থী পার্কে ঘুরাঘুরি করলে পুলিশ থানায় ধরে নিয়ে শাস্তি প্রদান করবে, আজকে স্কুল কলেজ চলাকালীন সময়ে পার্কে শিক্ষার্থীরা আড্ডা দিচ্ছে দেখে পুলিশ থানায় নিয়ে গেছে, আমি পুলিশকে বলে দিয়েছি ওদের অভিভাবকরা থানায় আসলে তাঁদের দ্বায়িত্বে ওদের সর্তক করে ছেড়ে দিবে। আশাকরি এই ধরনের ঘটনা পুনরায় না হউক।’

এদিকে তার পোস্টের মন্তব্যে ওয়ালিউল মুক্ত নামে একজন লিখেছেন, ‘পার্কে ছেলেমেয়েরা ঘুরবে না বসে থাকবে তা কোন আইনে নির্ধারণ আছে, বুঝলাম না! স্কুল পড়ুয়া কম বয়সি ছেলে-মেয়েদের পুলিশ বাহিনীর হাত দিয়ে আটক করা, আসামিদের মতো গাড়িতে তোলা ও থানা ঢোকানোর মতো অত্যন্ত রুঢ় ঘটনাগুলো ঘটানো হলো। এই বয়সে তাদের মানসিকভাবে যে ট্রমার মধ্যে নেওয়া হলো- এটার দায় কে নেবে? এটা বোঝার মতো সক্ষমতাও থাকতে হবে। প্লিজ, দেশের জন্য কাজ করুন, কাজ না থাকলে পার্কে গিয়ে টাইম পাস করবেন না।’

একটি জাতীয় দৈনিকের সাংবাদিক মাহতাব হোসেন লিখেছেন, ‘আপনি যেটা করছেন সেটা আইনসিদ্ধ? আর পুলিশ? তাদের কাজ হয়রানি করা? আহমেদ দিদার নামে একজন বলেছেন অসংখ্য ধন্যবাদ পেশ করলাম এই রকম এক মহান কাজ করার জন্য।’

তবে ভুক্তভোগীদের ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করায় এবং শিক্ষার্থীদের পুলিশ ভ্যানে আসামিদেরমত বসিয়ে নিয়ে যাওয়ায় অনেকেই এই সংসদ সদস্যের সমালোচনা করেছেন।

এদিকে সংসদ সদস্য মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী বাংলা’কে বলেন, ‘তরুণ সমাজের নৈতিক অবক্ষয় রোধে এমন উদ্যোগ। স্কুল-কলেজ চলাকালীন সময়ে পার্কের ভেতরে অসামাজিক কর্মকাণ্ড হবে এটা মেনে নেওয়া যায় না, তাই অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে এমন পোস্ট। তবে এই পোস্ট নিয়ে যারা সমালোচনা করছেন তাদের বলব এটাকে ইতিবাচকভাবে দেখুন।’ এই ধরনের ঘটনা পুনরায় ঘটলে পুলিশ ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0191 seconds.