• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৭ মে ২০১৯ ২৩:১২:৪৫
  • ২৭ মে ২০১৯ ২৩:১৪:৩০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রোহিঙ্গা হত্যায় দণ্ডিত ৭ সেনা সাজা শেষের আগেই মুক্ত

ছবি : সংগৃহীত

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নির্যাতনের অপরাধে কারাদণ্ড ভোগ করা সাত সেনা সদস্য মুক্তি পেয়েছে নির্ধারিত সাজা ভোগ করার আগেই। তাদের বিরুদ্ধে ১০ জন রোহিঙ্গা পুরুষ ও বালককে হত্যা করার অপরাধে এই দণ্ড দেয়া হয়। সাজাপ্রাপ্ত সাত সেনা সদস্যকে গত বছরের নভেম্বরেই জেল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম রয়টার্সের বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করে বিবিসি।

২০১৮ সালে ওই সাত জনকে ১০ বছরের সাজা দেয়া হয়। রাখাইনের ইন দিন গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড চালানোর অভিযোগ আনা হয়েছিলো।

২০১৭ সালে মিয়ানমারের পশ্চিম রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে যে ব্যাপক দমন অভিযান চালানো হয় সেই ঘটনায় একমাত্র এই সাতজনেরই সাজা হয়েছিল। ওই অভিযানের ফলে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।

সোমবার মিয়ানমারের কারা দফতরের একজন মুখপাত্র জানান, ইন দিন গ্রামের হত্যাকাণ্ডের জন্য সাজাপ্রাপ্তদের কেউ আর তাদের কারাগারে নেই।

দন্ডপ্রাপ্ত সৈনিকদের একজন তাদের মুক্তির বিষয়টি রয়টার্সের কাছে স্বীকার করলেও এ বিষয়ে কিছু বলতে অস্বীকৃতি জানান। তিনি বলেন, ‘আমাদের চুপ থাকতে বলা হয়েছে।’

কারাগারে তাদের সঙ্গে ছিলেন এমন দু’জন বন্দী জানান, গত নভেম্বরে এই সেনাদের মুক্তি দেয়া হয়। তাদের দশ বছরের সাজা হলেও সাজা খাটতে হয়েছে এক বছরেরও কম।

আবার যে দুই সাংবাদিক এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ফাঁস করেছিলেন তাদের সাজা হয়েছিল সাত বছর। ওয়া লোন এবং কিয়া সো ও নামের এই দুই সাংবাদিককে ১৬ মাস কারাভোগের পর সম্প্রতি প্রেসিডেন্টের সাধারণ ক্ষমার আওতায় মুক্তি পায়।

ইন দিন গ্রামের এই হত্যাকাণ্ড ফাঁস করায় রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে জেলে পাঠানোর ঘটনায় সামরিক বাহিনীর ভূমিকা স্পষ্ট বলে মনে করেন পর্যবেক্ষকরা।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0175 seconds.