• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৭ মে ২০১৯ ১২:১১:৪৯
  • ২৭ মে ২০১৯ ১২:১১:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘বিয়ে না করা নারীরাই সবচেয়ে বেশী সুখি’

ছবি : প্রতিকী

আমরা সন্দেহর মধ্যে থাকতে পারি, কিন্তু বিজ্ঞান আমাদের এটা ভেঙে দিয়েছে। শীর্ষ সুখ বিশেষজ্ঞের মতে, অবিবাহিত ও সন্তানহীন নারীরাই জনগণের মধ্যে সবচেয়ে সুখি। এবং তারা বিবাহিত ও সন্তান পালনকারী নারীদের চেয়েও বেশি দিন বাঁচে।

শনিবার লন্ডন স্কুল অব ইকোমিকস’র ব্যবহার বিষয়ক বিজ্ঞানের অধ্যাপক ও সুখ বিশেষজ্ঞ পল ডলান ‘হে ফেস্টিফ্যালে’ এ কথা বলেন। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা দ্য গার্ডিয়ান এমন খবর প্রকাশ করে।

এ সময় তিনি বলেন, ‘সর্বশেষ প্রমাণ গুলো দেখায় যে, ‘সফলতা পরিমাপ করার প্রথাগত নির্দেশক গুলো কাজ করছে না। বিশেষত বিবাহ এবং বংশবৃদ্ধি বা সন্তান লালন-পালন করা। অন্য জনগোষ্ঠীর চেয়ে বিবাহিত লোকেরা সুখি। কিন্তু যখন স্বামী-স্ত্রী একাই ঘরে থাকবে তখন তাদের জিজ্ঞেস করবেন তারা কেমন সুখি? একজনের অবর্তমানে আর একজন বলবে, খুবই দুর্বিষহ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা একই সময় একই ব্যক্তির কাছে থেকে এর সাথে সম্পর্কিত কিছু ভালো তথ্য সংগ্রহ করি। কিন্তু যখন আমরা বৈজ্ঞানিকভাবে ব্যাপক অপকারের বিষয় জানতে চাইলাম এবং শুধু বলল, তুমি যদি ছেলে হও তাহলে অবশ্যই বিয়ে করো আর তুমি যদি একজন নারী হও করো না।’

তিনি বলেন, মানুষের সফলতা সন্তান লালন-পালন ও বিয়ের সঙ্গে সম্পর্ক নেই। বিবাহিত মানুষরা শুধু তখনই সুখী যখন তাদের সঙ্গীরা ঘরে থাকে। কিন্তু যখন সঙ্গী কাছে না থাকে তখন তার জীবনটা দুর্বিষহ।

তিনি বলেন, বিবাহের দ্বারা শুধু পুরুষরাই উপকৃত হচ্ছে। কেননা, এর দ্বারা পুরুষ শান্ত ও স্থির থাকে। এতে তার ঝুঁকি কম। কর্মক্ষেত্রে তার আয়ও বেশি। এর ফলে তারা একটু বেশি দিন বাঁচে।

অন্যদিকে, বিবাহিত নারীকে তার সঙ্গীকে বিভিন্নভাবে সেবা বা সঙ্গ দিয়ে যেতে হয়। এ কারণে অবিবাহিত নারীর তুলনায় সে বাঁচেও কম দিন।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

সুখ বিবাহ নারী

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0547 seconds.