• বাংলা ডেস্ক
  • ০৯ মে ২০১৯ ২১:৪০:০৬
  • ০৯ মে ২০১৯ ২১:৪০:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রোজা রাখলে ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস হয়

ওশিনরি ওসুমি। ছবি : সংগৃহীত

রোজার উপর গবেষণা করে জাপানি গবেষক ওশিনরি ওসুমি ২০১৬ সালে ‘অটোফেজি’ নামক একটি শারীরিক প্রক্রিয়ার আবিষ্কার করেন এবং নোবেল পুরস্কার পান। মুসলিম সম্প্রদায়ে যা রোজা নামে পরিচিত তা বিজ্ঞানের ভাষায় ‘অটোফেজি’। যা ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করতে পারে।

অটোফেজি শব্দটি এসেছে গ্রিক শব্দ অটো ও ফাজেইন থেকে। বাংলায় যার অর্থ হচ্ছে আত্মভক্ষণ বা নিজেকে খেয়ে ফেলা।

উপবাসের সময় আমাদের শরীরের সক্রিয় কোষগুলো নিষ্ক্রিয় থাকে না। সক্রিয় কোষগুলো সারা বছরে তৈরি হওয়া ক্ষতিকারক আর নিষ্ক্রিয় কোষগুলোকে খেয়ে ফেলে শরীরকে নিরাপদ আর পরিষ্কার করে দেয়। এটাই ‘অটোফেজি’। অটোফেজি আবিষ্কারের পর থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন ধর্মের বা ধর্ম মানে না কিন্তু স্বাস্থ্য সচেতন এমন অনেক মানুষ সারা বছরে বিভিন্ন সময় ‘অটোফেজি’ করে শরীরকে সুস্থ রাখেন। অনেক ধরনের ক্যান্সারের জীবাণুও ‘অটোফেজি’তে মারা যায়!

রোজা ছাড়াও ক্যান্সারের জীবাণু মারার ক্ষেত্রে বেইজিং সামরিক হাসপাতালের চিফ এক্সিকিউটিভ অধ্যাপক চেন হোরিন বলেন, ‘গরম পানির গ্লাসে লেবুর টুকরা আপনার বাকি জীবনের জন্য আপনাকে বাঁচাতে পারে। কেননা গরম লেবু ক্যান্সার কোষকে মেরে ফেলে।’

বিজ্ঞানের ভাষায় হট লেবু থেকে এন্টি ক্যান্সার ড্রাগ বের হয়। শুধু ক্যান্সার নয়, টিউমারের উপরও গরম লেবুর রসের একটি কার্যকরী প্রভাব আছে। তাছাড়া সব ধরনের ক্যান্সারের চিকিৎসার ক্ষেত্রে গরম লেবুর রসের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

রোজা অটোফেজি ক্যান্সার

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0184 seconds.