• বাংলা ডেস্ক
  • ০৯ মে ২০১৯ ১৫:২৪:৩৬
  • ০৯ মে ২০১৯ ১৫:২৬:২১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

স্কুলে বন্দুক হামলা, বন্ধুদের বাঁচাতে গিয়ে কিশোর নিহত

কেন্ড্রিক ক্যাস্টিয়ো। ছবি : বিবিসি থেকে নেয়া

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডোর একটি হাই স্কুলে দু’জন যুবক বন্দুক নিয়ে হামলা করার ঘটনা ঘটেছে। আর এই হামলাকারীদের একজনকে প্রতিহত করতে গিয়ে নিহত হয় ওই স্কুলের ছাত্র কেন্ড্রিক ক্যাস্টিয়ো (১৮)। এছাড়াও ওই হামলায় আরো ৮ জন শিক্ষার্থী আহত হয়।

মঙ্গলবার ডেনভারের একটি শহরতলীতে অবস্থিত একটি স্কুলে এই বন্দুক হামলার ঘটনাটি ঘটে। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি এ খবর প্রকাশ করে।

ঐ হামলায় আরো ৮ জন ছাত্র আহত হলেও ১৮ বছর বয়সী কেন্ড্রিক ক্যাস্টিয়ো বাদে আর কেউ নিহত হয়নি।

 এই হামলার ঘটনায় দু'জন ছাত্র জড়িত ছিলেন এবং তোদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৯ সালে ১১৫তম গুলির ঘটনা হিসেব মনে করা হচ্ছে এই হামলাকে।

নিহত কেন্ড্রিকের সহপাঠী নুই গিয়াসোলি যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমকে জানান, তিনি যখন ব্রিটিশ সাহিত্য ক্লাসে ছিলেন তখন সন্দেহভাজন হামলাকারীদের একজন ক্লাসে ঢুকে বন্দুক বের করেন।

নুই গিয়াসোলি আরো বলেন, ‘কেন্ড্রিক বন্দুকধারীর দিকে ছুটে যান এবং আমাদের সবাইকে যথেষ্ট সুযোগ দেন যেন আমরা ডেস্কের নিচে নিরাপদে লুকাতে পারি বা ক্লাসরুমের বাইরে পালাতে পারি।’

ডেনভার পোস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কেন্ড্রিকের বাবা জন ক্যাস্টিয়ো বলেন, ‘তার ছেলে যে বন্দুকধারীকে প্রতিহত করতে তার দিকে এগিয়ে যায়, এ ঘটনায় একেবারেই অবাক হননি তিনি।’

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘আমি অবশ্যই চাইতাম সে যেন লুকিয়ে যেত, কিন্তু সেটি তার চরিত্র নয়। মানুষকে সাহায্য করা, মানুষকে রক্ষা করাই ছিল তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য।’

একমাত্র সন্তান কেন্ড্রিককে হারিয়ে পিতা ক্যাস্টিয়ো বলেন, ‘তিনি এবং তার স্ত্রী দু'জনেই মানসিক আচ্ছন্নতার মধ্যে আছেন।’

দ্বিতীয় আরেকজন বন্দুকধারীকে প্রতিহত করার জন্য ব্রেন্ডান বিয়ালি নামের আরেকজন ছাত্রকে 'নায়ক' হিসেবে প্রশংসা করা হচ্ছে।

ডগলাস কাউন্টির শেরিফ টনি স্পারলক বলেন, ‘হামলাটি স্থানীয় সময় দুপুর ২টার কিছুক্ষণ আগে শুরু হয়।’

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘দুইজন হামলাকারী যেই প্রবেশপথটি দিয়ে ঢুকে সেখানে কোনো মেটাল ডিটেক্টর ছিল না। তারা দু্টি আলাদা জায়গায় গুলি শুরু করেন। দু'জন সন্দেহভাজনই স্কুলের ছাত্র ছিলেন। গুলি শুরু হওয়ার মিনিট খানেকের মধ্যেই পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।’

উল্লেখ্য, গত মাসে নর্থ ক্যারোলাইনা বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীকে প্রতিহত করতে গিয়ে রাইলি হাওয়েল নামের ২১ বছর বয়সী এক ছাত্র মারা যান।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0228 seconds.