• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৮ মে ২০১৯ ২২:২১:১২
  • ০৮ মে ২০১৯ ২২:২৬:০৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘ধর্ষণের’ চেষ্টাকারীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

ছবি : সংগৃহীত

শহিদুল ইসলাম নামের ২২ বছরের এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে জনগণ। টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা করেছিলো গণপিটুনির শিকার হওয়া এই যুবক। তার নামে এই অভিযোগে থানায় একটি মামলাও রয়েছে।   

বুধবার দুপুরে ঘাটাইল উপজেলার পাকুটিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় স্থানীয়রা তাকে আটক করে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

অভিযুক্ত শহিদুল মধুপুর উপজেলার বেকারকোণা এলাকার বাসিন্দা। আর ভুক্তোভোগী শিশুটি স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেনের নার্সারির ছাত্রী।

জানা যায়, শনিবার দুপুরে বৃষ্টিপাতের (ফণীর প্রভাবে) সময় শহিদুল প্রতিবেশী শিশুটিকে লোভ দেখিয়ে পাশের নির্মাণাধীন একটি পাকা বাড়িতে নিয়ে যান। এরপর শিশুটির উপর নির্যাতনের চেষ্টা করে। এসময় শিশুটির কান্নার শব্দ শুনে প্রতিবেশী ও পরিবারের লোকজন গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। তারপর গোপনে শিশুটির চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়।

অভিযুক্ত শহিদুল এ ঘটনার পর পালিয়ে যায়। কিন্তু ফেসবুকে তার ছবি দিয়ে শহিদুলকে ধরিয়ে দেয়ার জন্যে একাধিক পোষ্ট করেন এলাকার লোকজন। ফেসবুকে সেই ছবি দেখে ওই বাসস্ট্যান্ডে ঘোরাঘুরির সময় সেখানকার স্থানীয়রা তাকে চিনে ফেলে। এসময় লোকজন তাকে ধরে মারধর করে ঘাটাইল পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

এ ব্যাপারে মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বখাটে শহিদুলকে ঘাটাইলের পাকুটিয়া থেকে গ্রেপ্তার করে মধুপুর থানায় আনা হয়েছে। শহিদুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে সোমবার মধুপুর থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে শহিদুল পলাতক ছিল।’

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

শিশু ধর্ষণ টাঙ্গাইল

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0208 seconds.