• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৭ মে ২০১৯ ১৫:১৯:৩৭
  • ০৭ মে ২০১৯ ১৫:১৯:৩৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

উচ্চবর্ণের সাথে খেতে বসায় পিটিয়ে হত্যা

প্রতীকী ছবি

ভারতে হিন্দু দলিত সম্প্রদায়ের এক তরুণকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন উচ্চবর্ণের হিন্দু লোকজন। বিয়ে বাড়িতে উচ্চবর্ণের লোকদের সাথে বসে খাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তারা এ কাজ করেন। দেরাদুনের তেহরি গারওয়াল জেলার শ্রীকোট এলাকায় মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটে। ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এই সময় এমন খবর প্রকাশ করে।

২৬ এপ্রিল মারধরের ফলে গুরুতর আহত হলে পরদিন ওই যুবককে দেরাদুনের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর রবিবার বিকেলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম জিতেন্দ্র দাস (২১)। তিনি বাসান গ্রামের বাসিন্দা। ২৯ এপ্রিল জিতেন্দ্রর দিদির অভিযোগের ভিত্তিতে তাদেরই পাড়ার ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ছুতোর মিস্ত্রির (কাঠ মিস্ত্রি) কাজ করতেন জিতেন্দ্র। মা, দিদি ও ভাইসহ ৪ জনের এই সংসারে তিনিই ছিলেন একমাত্র উপার্জনকারী।

নিহত যুবকের চাচা ভয়াবহ সেই দিনের কথা বলতে গিয়ে জানিয়েছেন, 'সেই রাতে আমরা শ্রীকোটের এক আত্মীয়ের বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। আমরা একটা সাইডে ছিলাম। জিতেন্দ্র খেতে গিয়েছিল। খাওয়া দাওয়ার পর আমরা আলাদা আলাদা বাড়ি ফিরি। পরদিন আমরা ঘটনাটা শুনি। ওর মা ওকে অবচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে হাসপাতালে নিয়ে যান।'

এ বিষয়ে জিতেন্দ্রর এক বন্ধু জানায়, বিয়ে বাড়িতে এবং নিজ বাড়ি ফেরার পথে ব্যাপক মারধর করা হয় জিতেন্দ্রকে।

তিনি আরো জানান, 'ও (জিতেন্দ্র) আমাদের বলেছিল, বিয়েবাড়িতে উচ্চবর্ণের লোকেদের সামনে চেয়ারে বসে নৈশভোজ করছিল। তাই দেখে খেপে গিয়ে প্রথমে জিতেন্দ্রর খাবারের প্লেট ও পরে তাকে লাথি মেরে ফেলে দেয় অভিযুক্তরা। এরপর ওকে চরম হেনস্থা করা হয়।' এতেও ক্ষান্ত হয়নি তারা, পরে জিতেন্দ্রর পিছু নিয়ে রাস্তায় ওকে নৃশংসভাবে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ করেছেন তার বন্ধু।

এ ব্যাপারে পুলিশ জানায়, তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে কেউ সাক্ষ্য দিতে রাজি নয়। জিতেন্দ্রর মৃত্যুর পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করা হবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0182 seconds.