• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৫ মে ২০১৯ ২১:২৯:০৩
  • ০৫ মে ২০১৯ ২১:২৯:০৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মৃত্যুবার্ষিকীতে টিপু সুলতানের প্রতি ইমরানের শ্রদ্ধা

ছবি : সংগৃহীত

শের-ই মহীশুর বা মহীশুরের বাঘ হিসেবে সুপরিচিত টিপু সুলতানের মৃত্যুবার্ষিকীতে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।  অষ্টাদশ শতকের এই বীর শাসকের অদম্য সাহসেরও প্রশংসা করেছেন তিনি।   

শনিবার ইমরান খান টুইটারে টিপু সুলতানের প্রশংসা করে লেখেন, ‘আজ ৪ মে টিপু সুলতানের মৃত্যুবার্ষিকী।  তিনি এমন একজন মানুষ যাকে আমি প্রশংসা করি কারণ তিনি দাসত্বের জীবন যাপনের চাইতে স্বাধীনতার জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করাকে শ্রেয় মনে করেছেন। ’

অবশ্য ইমরান খান এর আগেও টিপু সুলতানের বীরত্বের প্রশংসা করেছেন।  গত ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামাকাণ্ডের পর ভারত-পাকিস্তানের উত্তেজনা যখন তুঙ্গে তখন পাকিস্তানের সংসদের এক যৌথ অধিবেশনে পাক প্রধানমন্ত্রী অকুণ্ঠভাবে টিপু সুলতানের প্রশংসা করেছিলেন।

উল্লেখ্য, চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশুর যুদ্ধে ইংরেজদের বিরুদ্ধে সাহসের সঙ্গে যুদ্ধ করে মারা যান এই বীর যোদ্ধা।  যুদ্ধে যখন টিপু সুলতান কোণঠাসা হয়ে পড়েন সেসময় ফরাসি সামরিক উপদেষ্টা তাকে গোপন একটি পথ দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন।  কিন্তু তিনি বলেছিলেন, ‘ভেড়ার মত হাজার দিন বেঁচে থাকার চেয়ে বাঘের মত একদিন বেঁচে থাকাও অনেক ভালো। ’ তার এই উক্তিটি পরবর্তীকালে বেশ বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিল।

কেবল বীরত্বের জন্যই নয় বরং আরো অনেক কারণেই টিপু সুলতান ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তার শাসনামলে তিনি অনেক প্রশাসনিক উদ্ভাবনও করেছিলেন।  তিনি নতুন ভূমি রাজস্ব পদ্ধতির উদ্ভাবন করেন।  এই পদ্ধতি মহীশুরে রেশম শিল্পের অগ্রগতিতে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। 

টিপু সুলতানকে রকেট আর্টিলারির পথিকৃৎ ভাবা হয়।  ভারতের সাবেক প্রেসিডেন্ট এপিজে আব্দুল কালাম ১৯৯১ সালে বেঙ্গালোরে টিপু সুলতান শহীদ মেমোরিয়ালে বক্তৃতা দেয়ার সময় বিশ্বের প্রথম যুদ্ধ রকেট আবিষ্কারের কৃতিত্ব টিপু সুলতানকে দেন।

বাংলা/এফকে

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0181 seconds.