• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৫ মে ২০১৯ ২০:২৯:২৩
  • ০৫ মে ২০১৯ ২০:৩৯:২৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

২০০ আলেমকে বহিষ্কার করেছে শ্রীলঙ্কা

ছবি : সংগৃহীত

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডে হামলার ঘটনার জের ধরে ৬০০ জনের বেশি বিদেশি নাগরিককে বহিষ্কার করেছে দেশটির সরকার। এদের মধ্যে ২০০ জন আলেম রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভাজিরা আবিওয়ারদেনা।

রবিবার ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে শ্রীলঙ্কার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মুসলিম এই ধর্মীয় নেতারা বৈধভাবেই শ্রীলঙ্কায় প্রবেশ করেছিলেন। কিন্তু ইস্টার সানডের হামলার পর দেশজুড়ে ব্যাপক তল্লাশি চলাকালে দেখা গেছে, তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও তারা শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করছেন। এর ফলে তাদের কাছ থেকে জরিমানা নিয়ে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

ভাজিরা আবিওয়ারদেনা জানান, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভিসা পদ্ধতি পর্যালোচনা করা হয়েছে এবং ধর্মীয় নেতা ও শিক্ষকদের ভিসার দেয়ার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি উল্লেখ করেন, যেসব বিদেশি নাগরিককে শ্রীলঙ্কা থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের মধ্যে ২০০ জন আলেমও রয়েছেন। তবে বহিষ্কৃত ব্যক্তিদের জাতীয়তা প্রকাশ করেনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এমন অনেক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান আছে যারা দীর্ঘদিন ধরেই বিদেশি শিক্ষকদের এনে ধর্মীয় শিক্ষা দিয়ে থাকে। তাদের নিয়ে আমাদের কোন সমস্যা নেই। কিন্তু ভুঁইফোঁড় কিছু প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তাদের প্রতি আমাদের বেশি নজর থাকবে।’

ভাজিরা আবিওয়ারদেনা জানান, বিদেশি ধর্মীয় শিক্ষকরা স্থানীয়দের চরমপন্থী হতে অনুপ্রাণিত করতে পারে ভেবে শ্রীলঙ্কার সরকার ভিসা সংস্কারে মনোযোগ দিয়েছে। যাতে ২১ এপ্রিলের পুনরাবৃত্তি আর কখনো না ঘটতে পারে।

উল্লেখ্য, ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডের দিনে শ্রীলঙ্কার কয়েকটি হোটেল এবং তিনটি গির্জায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৫৭ জন প্রাণ হারান। এই হামলার জন্য চরমপন্থী ইসলামী গ্রুপকে দায়ী করেছে দেশটির সরকার।

বাংলা/এফকে

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0106 seconds.