• ১৫ এপ্রিল ২০১৯ ২২:৩০:৪৭
  • ১৫ এপ্রিল ২০১৯ ২২:৩০:৪৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভিন্নধর্মী আয়োজনে বরিশালে বৈশাখী উৎসব

ছবি : সংগৃহীত


জহির রায়হান, বরিশাল প্রতিনিধিঃ


পহেলা বৈশাখ! বাঙ্গালীর এক অবিচ্ছেদ আবেগ ও ভালবাসার নাম। প্রতি বছর পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে সমগ্র বাঙ্গালী জাতি এক কাতারে চলে আসে। লাল-সাদা পোশাক, পান্তা ইলিশ, আর মঙ্গল শোভা যাত্রা,বৈশাখী মেলা

সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পালন করেছে গোটা দেশ। এসব অনুষ্ঠান প্রতি বছরই ধারাবাহিকভাবে নিয়মিত পালন করা হয়। তবে পহেলা বৈশাখের উৎসব কে ঘিড়ে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্যাম্পাস জুড়ে 

পুরানো  ইতিহাস, ঐতিহ্য- সংস্কৃতি কে ধারণ করে  বর্ণ বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষে রং তুলির ভাষায় আলপনা  আকাঁ খুব কমই লক্ষ করা যায়। এমন ভিন্নধর্মী আলপনা আকাঁ দেখা গেছে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম)  কলেজ ক্যাম্পাস জুড়ে। এর পাশাপাশি ‌‘শিখড়ের উৎসবে রাঙাই স্পর্ধার জীবন’ উপরে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মুখর ছিল গোটা বিএম কলেজ এলাকা । বিএম কলেজের যৌবনে পহেলা বৈশাখ কে ঘিরে এত বর্ণিল সাজগোছ আর এত  বড় উৎসবমুখর আয়োজন এই প্রথম দেখেছেন, কলেজের সাবেক ও বর্তমান  শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী আর শিক্ষার্থীরা।

কলেজের সাবেক ছাত্র আবদুল্লাহ মাহফুজ অভি বাংলা’কে জানিয়েছেন, তার দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন ছিল পহেলা বৈশাখ কে ঘিড়ে বিএম কলেজে কিভাবে বর্ণাঢ্য উৎসব পালন করা যায়। এরই লক্ষে তিনি প্রথমে কলেজের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের স্ট্যাটাস দিয়ে সহযোগীতা চান। এরপর সকলের সাড়া পাওয়ায় পরপরই পহেলা বৈশাখের উৎসবকে সফল করতে সবাইকে নিয়ে তিনি গত কয়েকদিন দিন-রাত সমান তালে কাজ চালিয়েছেন। এর পাশাপাশি কলেজ শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন ভাবে তাকে সহযোগীতা করেছে । তারা উৎসবকে দৃষ্টিনন্দন করতে শিয়াল পন্ডিত, পাখি, মোড়ক, সাম্পান নৌকা, রক্ষস, পালকি, সরাসহ ভিন্নধর্মী নানা শিল্পকর্ম তৈরী করছে।

বিএম কলেজ বৈশাখ উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক ছাত্রনেতা আতিকউল্লাহ মুনীম জানিয়েছেন, পহেলাবৈশাখ উপলক্ষে আগের দিন পুরো ক্যাম্পাসে আলপনা আঁকা হয়েছে। আর ঢাক উৎসবের মধ্য দিয়ে শুরু হয় পহেলা বৈশাখের সকাল। এরপর রাখী বন্ধন উৎসব, লাঠি খেলা, বায়োস্কোপ প্রদর্শন চলে দুপুর পর্যন্ত। বিকেলে শুরু হয় ঢাকা থেকে আসা এ্যাসেস ব্র্যান্ড গ্রুপের পরিবেশিত মাটির টানে দেশীয় সংস্কৃতির গান। গান উপভোগ করে মেতে উঠেন কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী আর বরিশাল নগর জুড়ে আসা সব বয়সী দর্শক। এছাড়াও কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয় দুইদিন ব্যাপী বৈশাখী মেলা।

অনুষ্ঠানে আসা বিপ্লব মন্ডল নামে এক নবীন কবি বাংলাকে জানিয়েছেন, বিএম কলেজে এই হরেক রকম আলপনা আঁকার মধ্যদিয়ে শিক্ষার্থীসহ এখানে আসা সবাইকে বাংলার পুরানো ঐতিহ্যকে লালন করতে আরো সহজ করে দিবে এবং তাদের কে মনে করিয়ে দিবে বাংলার নিজস্ব সংস্কৃতি কে।
দুই দিনব্যাপী আলপনা আঁকা ও প্রাণের উৎসব বৈশাখ ১৪২৬ বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে আজ শেষ হলেও আগামী বছরগুলোতে এমন আয়োজন করার দাবীও জানিয়েছেন, কলেজের একাধিক শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী আর শিক্ষার্থী। 

আর এফ এল প্লাস্টিকস নিবেদিত প্রাণের বৈশাখ ১৪২৬ এর আয়োজনে ছিলেন ‘ই-টুয়েন্টিফোর ইভেন্টস’। অনুষ্ঠানটির সহযোগিতায় ছিলেন রেনেসা ইন্টারন্যাশনাল, লোটো, ফগ। অনুষ্ঠাটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিলেন, অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা, দৈনিক আমাদের সময় এবং রেডিও ধ্বনি।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0213 seconds.