• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৪ এপ্রিল ২০১৯ ২২:৪২:০২
  • ১৫ এপ্রিল ২০১৯ ০০:১৫:৩৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভোটে ক্ষমতা হারাচ্ছে মোদির বিজেপি, চাঞ্চল্যকর সমীক্ষা

ছবি : সংগৃহীত

ভারতের লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার-প্রচারণার কোনো কমতি রাখেনি ভোটে অংশগ্রহণকারী দল গুলো। কিন্তু ১১ এপ্রিলে অনুষ্ঠিত প্রথম রাউন্ডের ভোট শেষে বর্তমান ক্ষমতাশীন দল বিজেপি শিবিরের অবস্থা খুব একটা ভাল নয়। সম্প্রতি বিজেপি ইনসাইডার নামে একটি টুইটার হ্যান্ডেল এমন একটি সমীক্ষা প্রকাশ করে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন এমন খবর প্রকাশ করেছে।

একাধিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, আগের তুলনায় কম ভোট পড়ায় বিজেপি নেতারা নাকি আফশোস করছেন। বিজেপি মনে করছে পুলওয়ামা হামলা এবং বালাকোটের এয়ারস্ট্রাইকের যতটা প্রভাব ভোট বাক্সে পড়ার কথা ছিল, ততটা পড়ছে না। সেজন্য ভোটের প্রথম রাউন্ড থেকে যে পরিমাণ আসন আশা করছিল বিজেপি। ততটা ফল নাও মিলতে পারে।

নয়াদিল্লিতে বিজেপি ইনসাইডারে প্রকাশিত সমীক্ষায় দাবি করা হয়, বিজেপি গোটা দেশে ১৫০ থেকে ১৬০টি আসনে পাচ্ছে। মূলত বিজেপির তরফ থেকেই এই সমীক্ষাটি করা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র এবং বিহারে সবথেকে বেশি লোকসান হচ্ছে দলটির।

বিজেপি ইনসাইডার এই টুইটার হ্যান্ডেলটির সমীক্ষায় যা দাবি করছে, তা সঠিক কিনা সেটা জানার উপায় নেই। তবে, বিজেপি শিবিরের ভেতর মহলের সাথে ইনসাইডারের ভাল যোগাযোগ আছে বলে মনে করেন দলটির নয়াদিল্লির নেতাকর্মীরা।

তবে উল্লেখ করার মত বিষয় এই যে, বিজেপির সাথে যুক্ত একাধিক খবর আগে থেকেই জানিয়ে দিয়েছিল এই টুইটার হ্যান্ডেলটি। এমনকি সম্প্রতি ওড়িশার বিজেডি সাংসদ জয় পাণ্ডার দলটিতে যোগ দেয়ার খবর বিজেপি ইনসাইডার অনেক আগেই ঘোষণা করেছিল।

সমীক্ষাটি প্রকাশের পর বিরোধী দলগুলো দাবি করেন, এই সমীক্ষাই সত্যি হতে চলেছে। এর আগে একাধিক বার তৃণমূলনেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, বিজেপি ১৫০টির বেশি আসন পাবে না।

এই টুইটার হ্যান্ডেলটি যে টুইটগুলি করেছে তার অধিকাংশই বিজেপি বিরোধী বলে সেখানে উল্লেখ করা হয়।আবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীদের একটি অংশ দাবি করছে, বিজেপিকে নিয়ে রসিকতাই বেশি করা হয়েছে। সেজন্য এই সমীক্ষা বিশ্বাসযোগ্য নয়।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0224 seconds.