• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ২৮ মার্চ ২০১৯ ২০:৩৩:৩৩
  • ২৮ মার্চ ২০১৯ ২০:৩৩:৩৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ম্যানইউ’র স্থায়ী কোচ হিসেবে নিয়োগ পেলেন সুলশার

ছবি : সংগৃহীত

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের স্থায়ী কোচ হিসেবে অবশেষে নিয়োগ পেয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত কোচ ওলে গুনার সুলশার।  ৪৬ বছর বয়সি নরওয়ের এই সাবেক ফুটবলারকে তিন বছরের জন্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।  

বৃহস্পতিবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে স্থায়ী কোচ হিসেবে সুলশারের নিয়োগপ্রাপ্তির খবরটি নিশ্চিত করা হয়।  

ম্যানইউর নির্বাহী ভাইস চেয়ারম্যান এড উডওয়ার্ড জানান,খেলোয়াড় এবং কোচ হিসেবে ওলে তার অভিজ্ঞতার ভান্ডার ক্লাবের জন্য বয়ে নিয়ে এসেছে, যা পারফরম্যান্স এবং ফলাফলের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া ক্লাবের সংস্কৃতি বুঝতে সাহায্য করার পাশাপাশি তরুণ খেলোয়াড়দের সুযোগ দেয়ার আকাঙ্ক্ষাও তার মধ্যে রয়েছে। ফলে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সেই একমাত্র উপযুক্ত ব্যক্তি।   

এদিকে সুলশারও এক বিবৃতিতে তার অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, ‘প্রথম যখন আমি এখানে এসেছি, তখন থেকেই বিশেষ এই ক্লাবটিকে নিজের ঘর বলেই মনে হয়েছে।  প্রথমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের খেলোয়াড় হওয়া এবং এরপর এখানেই কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করতে পারা আমার জন্য অত্যন্ত সম্মানের বিষয়। ’    

তিনি আরো বলেন,‘এটা এমন একটি চাকরি যা আমার স্বপ্ন ছিল, দীর্ঘ মেয়াদে ক্লাবটিকে নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পাওয়ায় আমি উদ্দীপ্ত। আশা করি আমরা আমাদের সফলতা অব্যাহত রাখতে পারবো যা আমাদের বিস্ময়কর সমর্থকদের প্রাপ্য। ’    

প্রসঙ্গত,একের পর এক ম্যাচ হারতে থাকায় গত বছরের ডিসেম্বরে ম্যানইউর তৎকালীন কোচ হোসে মরিনহোকে বরখাস্ত করে ক্লাবের সাবেক ফুটবলার সুলশারের কাঁধে দলটির দায়িত্ব তুলে দেয়া হয়।  এতদিন ধরে তিনি ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে বেশ সফলতার সঙ্গেই তার দায়িত্ব পালন করে এসেছিলেন।

সুলশারের অধীনে ১৯ টি ম্যাচের মধ্যে ১৪টিতেই জয়লাভ করে ম্যানইউ।  এমনকি চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার ম্যাচে পিএসজির মাঠে গিয়ে তারা শক্তিশালী ফরাসি ক্লাবটিকে পরাজিতও করে।  তখন থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল, ম্যানইউতে স্থায়ী কোচের পদে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন তিনি। অবশেষে তার এই স্বপ্ন পূরণ হলো।  

এদিকে ম্যানইউর খেলোয়াড়রাও সুলশারের উপর সন্তুষ্ট।  এর আগে মরিনহোর সময়ে ফুটবলারদের সঙ্গে তার গোলমালের অনেক খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছিল। বিশেষ করে পল পগবার সঙ্গে মরিনহোর মনোমালিন্যের খবরতো সকলেরই জানা।  অথচ মরিনহো যাওয়ার পর সুলশারের অধীনে  পল পগবা যেন আসল রূপে ফিরে এসেছে। দলের জয়ে রাখছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।  

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালে ১৫ লাখ পাউন্ডের বিনিময়ে ম্যানইউতে যোগ দেন নরওয়ের ফুটবলার ওলে গুনার সুলশার।  ক্লাবের হয়ে ৩৬৬ ম্যাচে তিনি ১২৬টি গোল করেন।  ১৯৯৯ সালে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে তার শেষ মুহুর্তের গোলে বায়ার্ন মিউনিখকে পরাজিত করে শিরোপা জয় করেছিল রেড ডেভিলরা।  

বাংলা/এফকে

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0223 seconds.