• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৮ মার্চ ২০১৯ ১৮:৫৭:১৯
  • ২৮ মার্চ ২০১৯ ১৯:০৩:০৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

গোলান ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদে ‘একঘরে’ ট্রাম্প

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক। ছবি: সংগৃহীত

বিতর্কিত গোলান ইস্যুতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিপক্ষে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ১৪ দেশ। তিনি ২৫ মার্চ অধিকৃত গোলান মালভূমির ওপর ইসরাইলের কথিত সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছেন। এই স্বীকৃতির পর বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। যার প্রতিফলন দেখা গেল নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে ।

ইরানি সংবাদ সংস্থা পার্সটুডে এমন খবর প্রকাশ করে।

বুধবার রাতে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে এ সংক্রান্ত এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেই বৈঠকে শুধুমাত্র আমেরিকা ব্যতিত পরিষদের বাকী ১৪ দেশ গোলান মালভূমি নিয়ে ট্রাম্পের ঘোষণাকে প্রত্যাখ্যান করে, সিরিয়ার সার্বভৌমত্বের প্রতি সমর্থন জানায়। কার্যত এর মধ্য দিয়ে গোলান ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদে একঘরে হয়ে পড়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

জাতিসংঘে নিযুক্ত সিরিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি বাশার আল-জাফারি বলেন, ‘নিরাপত্তা পরিষদের ১৪ দেশ গোলান মালভূমির মালিকানা ইসরায়েলকে দেয়ার বিরোধিতা করে কার্যত তেল আবিবের গালে শক্ত চপেটাঘাত করেছে। আমেরিকা আসলে এ পদক্ষেপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের পাশাপাশি জাতিসংঘকে অপমান করেছে।’

একই সাথে জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার উপ রাষ্ট্রদূত ভ্লাদিমির স্যাফরোনকভ ট্রাম্পের ঘোষণাকে প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, ‘এ মালভূমির ব্যাপারে রাশিয়া আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলবে। আমেরিকার এ পদক্ষেপ মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করবে।’

রাশিয়ার এ কূটনীতিক আরো বলেন, ‘গোলান মালভূমিকে আমেরিকা গায়ের জোরে ইসরাইলের কাছে হস্তান্তর করলেই বাস্তবতা পরিবর্তিত হয়ে যাবে না।’

জাতিসংঘে নিযুক্ত চীনের উপ রাষ্ট্রদূত ওয়াউ হাইতাও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে বলেছেন, ‘জাতিসংঘের সব ঘোষণায় গোলান মালভূমিকে ইসরাইলের জবরদখলকৃত ভূখণ্ড বলে উল্লেখ করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকগণ বলছেন, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ গোলান মালভূমি নিয়ে মার্কিন সরকারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে প্রকৃতপক্ষে ওয়াশিংটনকে চরম বার্তা দিয়েছে। এই বার্তায় আসলে একথাই বলা হয়েছে যে, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব উপেক্ষা করে ট্রাম্প চরম অন্যায় করেছেন এবং তিনি গোলান মালভূমি সম্পর্কে তার সিদ্ধান্ত মেনে নিতে গোটা বিশ্বকে বাধ্য করার চেষ্টা করে ধৃষ্টতাপূর্ণ কাজ করেছেন।

বাংলা/এনএস

 

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0186 seconds.