• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৫ মার্চ ২০১৯ ১৫:২০:০৩
  • ১৫ মার্চ ২০১৯ ১৫:২০:০৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

পরিচয় মিলেছে মসজিদে হামলাকারীর

ছবি : সংগৃহীত

শুক্রবার নিউজিল্যান্ড সময় বেলা ১টা ৪০ মিনিটে ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে বন্ধুকধারীর গুলিতে দুই বাংলাদেশিসহ নিহত হয়েছেন অনন্ত ৪৯ জন। এছাড়াও আহত হয়েছেন আরো অনেকেই। আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পাওয়া গেলো হামলাকারীর পরিচয়। তিনি হলেন অস্ট্রেলিয়ান বংশোদ্ভুদ ২৮ বছর বয়সী ব্রেনটন টারান্ট।

এই হামলাকারী শুধু এতোগুলা মানুষের প্রাণনাস করেই ক্ষ্যান্ত হননি, নিজের মাথায় রাখা ক্যামেরার সাহায্যে তা সরাসরি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারও করেছেন। টারান্ট মূলত হামলার আগমুহূর্ত থেকে ভিডিও প্রচার শুরু করে।

১৭ মিনিটের এই ভিডিওতে দেখা যায় টারান্ট একটি গাড়িতে করে মসজিদের সামনে আসেন এবং গাড়িটা পাশের ড্রাইভ ওয়েতে রেখে দেন। গাড়ির যাত্রী আসন ও তার বুটের ভিতর অনেক অস্ত্র ও গুলি ছিল। গাড়ি পার্ক করা হয়ে গেলে টারান্ট নিজেকে অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত করেন এবং মসজিদের গেট থেকেই শুরু করেন নারকীয় হত্যাকাণ্ড। তার এলোপাত্থাড়ি গুলিতে মুহুর্তেই সেখানে লাশের খেলা শুরু হয়ে যায়।

নিউজিল্যান্ডের সংবাদমাধ্যম হেরাল্ড জানান, টারান্ট এই নারকীয় হত্যাকান্ডের ভিডিও ফেসবুকে লাইভ সম্পচার করেছে। তবে আমরা এটা অপসারণের চেষ্টা করছি।

সেই মসজিদে হামলা হয়েছে সে মসজিদেই নামাজ পড়ার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের। তারা সেখানে টিম বাসে করে গিয়েছিল। কিন্তু বাস থেকে নামার পর এক মহিলা মসজিদের ভেতরের নৃসংশতার কথা তামিম, মুশফিক, রিয়াদদের কাছে খুলে বলেন। তাই ক্রিকেটাররা আর মসজিদে না গিয়ে দ্রুত বাসে উঠে পড়েন এবং হেগলি ওভালে চলে যান। ফলে নিশ্চিত এক মহাবিপদ থেকে রক্ষা পায় গোটা বাংলাদেশ দল।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0173 seconds.