• বাংলা ডেস্ক
  • ১৫ মার্চ ২০১৯ ১৪:১৬:০৬
  • ১৫ মার্চ ২০১৯ ১৪:১৬:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘পাস না করলে বিয়ে আটকে যাবে’, পরীক্ষায় খাতায় নানা আবদার

ছবি : সংগৃহীত

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার উত্তরপত্রের পাতায় পাতায় এখন অহরহই নানা ধরনের প্রস্তাব পাচ্ছেন শিক্ষকরা। শুধু প্রস্তাব নয়, থাকছে কারো কারো আকুতি, আবার কেউ কেউ হুমকিও দিচ্ছে।

পরীক্ষার খাতায় কেউ লিখেছে, ‘পাস না করলে মরে যাব’। কেউ লিখেছে, ‘পাস না করলে কেস করে দেব’।পাস নম্বর দিয়ে বাড়ির ঠিকানা দিলে টাকা পাঠানোর প্রস্তাবও দিয়েছে কেউ। 

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার অনেক শিক্ষকের কাছে যাওয়া উত্তরপত্রে এসব পাওয়া গেছে। খাতায় অনেক ধরনের আপত্তিকর শব্দও আছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জলপাইগুড়ি শহরের এক শিক্ষক মাধ্যমিকের ইতিহাসের উত্তরপত্র দেখছেন। উত্তরপত্রের নম্বর লেখার জায়গায় নীল কালি দিয়ে পরীক্ষার্থী লিখেছে, ‘আমি পাস না করলে আমি মরে যাব। স্যার, তারপর কেস করে দিব।’

মাধ্যমিকের বাংলা পরীক্ষার উত্তরপত্রে জলপাইগুড়ির ফাটাপুকুরের এক শিক্ষক হুমকি পেয়েছেন। ওই শিক্ষক জানান, উত্তরপত্রে লেখা রয়েছে, ‘আমি পাস না করলে বিপদ আসবে আপনার।’

এক ছাত্রী পাস করার জন্য বিয়ের দোহাইও দিয়েছে। এক শিক্ষক জানান, মাধ্যমিকের বিজ্ঞানের উত্তরপত্রে ছাত্রীটি লিখেছে, ‘মাধ্যমিক পাস না করলে আমার বিয়ে আটকে যাবে।’ 

উচ্চমাধ্যমিকের ইংরেজি পরীক্ষার একটি উত্তরপত্রে লেখা রয়েছে, ‘পাস করায় দেন স্যার। ঠিকানা দিলে ৩০০০ টাকা দেব। প্রমিস।’

ওই শিক্ষকের কথায়,‘এমন তো কত কী পেয়ে থাকি। সেগুলিকে অগ্রাহ্যই করে থাকি’

জলপাইগুড়ি জেলার শিক্ষা কর্মকর্তা অমিত সাহা বলেন, ‘এমন নানা আবেদন, হুমকি খাতায় পাওয়া যায়। তবে সেসবে কোন লাভ হয় না। শিক্ষকরা সবক্ষেত্রেই আবেদন-হুমকি না দেখে পরীক্ষার্থী কতটা ঠিক উত্তর লিখতে পারল সেটাই বিচার করেন।’

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

পশ্চিমবঙ্গ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0207 seconds.