• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৩ মার্চ ২০১৯ ২১:২০:৫০
  • ১৩ মার্চ ২০১৯ ২১:২০:৫০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

আরো বেশি অবৈধ ইহুদী বাসস্থান নির্মাণের ঘোষণা নেতানিয়াহুর

ছবি : সংগৃহীত

ইসরায়েল অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে ২০ হাজাররে বেশি অবৈধ বসতি স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু।  ৯ এপ্রিলের নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটারদের আকৃষ্ট করার জন্য এই ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেতানিয়াহু জানান, আগামি পাঁচ বছরের মধ্যে জেরুজালেমে ২৩ হাজার নতুন ইহুদী বসতি নির্মাণের জন্য চুক্তি করা হয়েছে। এতে ২৭৬ মিলিয়ন ডলার খরচ হবে। তিনি আরো জানান, জেরুজালেম কেবল ইহুদীদের বাসস্থানই নয় এটা তাদের রাজধানীও। পাশাপাশি তিনি ইসরায়েলকে কেবলমাত্র ইহুদীদের রাষ্ট্র হিসেবেও উল্লেখ করেন।  

অবশ্য ইসরায়েলকে ইহুদী রাষ্ট্র হিসেবে  ঘোষণা দেয়ার নেতানিয়াহুর এই নীতি আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে পড়েছে। এর ফলে ইসরায়েলে বাস করা আরব জনগোষ্ঠী দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিকে পরিণত হবে বলে সতর্ক করেছে ইসরায়েলি প্রভাবশালী পত্রিকা দৈনিক হারেৎজ।   

এদিকে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন। টুইটারে তিনি এটিকে বর্ণবাদী এবং বৈষম্যমূলক উদ্যোগ বলে উল্লেখ করেন। তিনি প্রশ্ন করেন, ১৬ লাখ আরব/মুসলিম ইসরায়েলে বাস করেন। পশ্চিমা দেশের সরকারগুলো কি এই ব্যাপারে কোন প্রতিক্রিয়া জানাবে না কি চাপের মুখে চুপ করে থাকবে?   

কালিন অভিযোগ করেন, এপ্রিলে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে সামনে রেখে কট্টর ডানপন্থীদের ভোট পাওয়ার আশায় নেতানিয়াহু এধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন। তিনি ইসরায়েলি আরবদের পুরোপুরি ধ্বংস করার চেষ্টা করছেন। অথচ আরবরা ইসরায়েলের জনসংখ্যার শতকরা ১৭.৫ ভাগ ।   

উল্লেখ্য, ইসরায়েলের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে যে সংঘর্ষ তার মূল কারণ এই অবৈধ বাসস্থান নির্মাণ। ইসরায়েলি সরকার অধিকৃত ফিলিস্তিনে আন্তর্জাতিক বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে প্রতিনিয়ত ইহুদীদের জন্য বাসস্থান তৈরি করে যাচ্ছে। গত বছরও ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ ১০ হাজার ২৯৮টি নতুন বসতি নির্মাণের অনুমতি দিয়েছে।   

বাংলা/এফকে

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0219 seconds.