• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৮ মার্চ ২০১৯ ১৬:৫২:৩৪
  • ০৮ মার্চ ২০১৯ ১৬:৫২:৩৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কবর থেকে মৃতদেহ তুলে জাঁকজমক অনুষ্ঠান!

ছবি: সংগৃহীত

শুনতে অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্য যে, কবর থেকে মৃতদেহ তুলে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান করা হয়েছে। আর এমনটা যে এই প্রথম ঘটেছে তা নয়, সামাজিক রীতি পালনের ক্ষেত্রে ইন্দোনেশিয়ায় এটা নিয়মিত ব্যাপার।

ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি পর্বতের গ্রামবাসী কিছু অদ্ভুদ সামাজিক রীতি পালন করে থাকে। মানুষ মারা গেলে অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া বা শেষকৃত্যানুষ্ঠানের সপ্তাহখানেক পর মৃতদেহ কবর থেকে তুলে এমন জাঁকজমক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মজার ব্যাপার হলো এই জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানও এক ধরনের অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া বা শেষকৃত্য।

সুলাওয়েসি পর্বতের গ্রামের  এই অধিবাসীরা তোরাজান উপজাতির সদস্য। আর এই অন্তেষ্টিক্রিয়া বা শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা একবার নয়, এমনটি করে থাকে প্রতি তিন বছর পর পর।

গত কয়েক শতাব্দী ধরে এমন অদ্ভুত রীতি পালন করে আসছেন তোরাজান উপজাতি। শতাব্দী প্রাচীন এ রীতির নাম ‘মানিন’।

দেশটির এক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের বাসিন্দারা প্রতি তিন বছর পর পর তাদের মৃত স্বজনদের দেহ কবর থেকে তুলে আনেন। মৃতদের পুরানো কাপড় বদলে নতুন কাপড় পরিয়ে দেন। এর পর সাজসজ্জা দিয়ে হইহুল্লোড় করে বাড়ি নিয়ে যান তারা। মৃতকে আবার সমাধিস্থ করার আগে কফিনকে মেরামত ও সুসজ্জিত করেন। এ ছাড়া মৃতকে বাড়ি নিয়ে পালন করা হয় নানা ধরনের আচার অনুষ্ঠান।

তোরাজান উপজাতির বিশ্বাস, এই মৃত্যুই জীবনের শেষ নয়, এটি শুধু আধ্যাত্মিক জীবনে প্রবেশের একটি পর্যায়। এ ছাড়া মৃতদের আত্মা প্রিয়জনের কাছে ফিরে আসে বলেও বিশ্বাস করেন তারা। তাই প্রতি বছর মৃতরা কেমন আছেন তা দেখতে এবং মৃতের পরিজনরা কেমন আছেন তা দেখাতে মৃত ব্যক্তিকে কবর থেকে তুলে আনা হয়। অত্যন্ত শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার সঙ্গে এমন অদ্ভুত রীতি শতাব্দী ধরে পালন করে আসছেন তোরাজানরা।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0195 seconds.