• ফিচার ডেস্ক
  • ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৬:৫৫:৪৯
  • ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৯:২৫:৫৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কিডনির পাথর ধ্বংস হবে লেবুর জাদুতে!

ছবি: সংগৃহীত

মানব দেহের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ কিডনি। এটি ছাড়া মানুষের অস্তিত্ব ভাবাই যায় না। কিডনির কাজ দেহে প্রবেশ করা ক্ষতিকর বিষাক্ত উপাদান ছেকে বের করে দেয়া। দেহে পানি, কেমিক্যাল ও ধাতুর সমতা ঠিক রাখে এই অঙ্গ।

বর্তমান সমেয় কিডনির সবচেয়ে বড় সমস্যা পাথর। অনেকের কিডনিতেই পাথর ধরা পড়ছে। পাথর ছোট হয়ে তা ছড়িয়েও পড়ে। কিডনিতে পাথর হলে কিডনি ধীরে ধীরে অকার্যকর হয়ে পড়ে। প্রচন্ড ব্যথা হয়ে থাকে। এইসব থেকে মুক্ত পাবেন প্রাকৃতিক উপায়ে। অপারেশন ছাড়ায় পাথর বের করে নিয়ে আসা সম্ভব বলছেন বিশেষজ্ঞরা। কিডনির এই পাথর অপসারণের জন্য বেশ কার্যকর হচ্ছে পাতিলেবুর রসের এক গ্লাস জল।

জি নিউজ লিখেছে, প্রত্যেক বাঙালির হেঁশেলেই থাকে পাতিলেবু। কিন্তু এর উপকারিতা সম্পর্কে ক’জন বাঙালিই বা অবহিত? জানেন কি, খালি পেটে প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস জলে আধখানা পাতিলেবুর রস মিশিয়ে পান করলে মুক্তি পেতে পারেন হাজারো সমস্যা থেকে। বিশেষ করে কিডনির পাথর।

কিডনি স্টোন হতে পারে ৪ রকম। এক রকমের কিডনির পাথর বংশানুক্রমে হয়। অন্য ৩ রকমের কিডনি পাথর ৮০ শতাংশ ক্যালসিয়ামভিত্তিক। পরিবারের কারও কিডনিতে পাথর হয়ে থাকলে কিডনিতে স্টোন হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। দীর্ঘদিনের কিডনির রোগ থাকলে কিডনিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাতিলেবুর রসে থাকে সাইট্রিক এসিড। এটা ক্যালসিয়ামজাত পাথরগুলিকে তৈরি হতে দেয় না। এ ছাড়াও বড় আকারের পাথরগুলিকে সাইট্রিক এসিড ছোট টুকরোতে ভেঙে দিতে পারে। যাতে সেগুলি সহজেই সরু মূত্রনালি দিয়ে বেরিয়ে যেতে পারে এবং ব্যথা কমায়। 

শুধু কিডনির পাথরই নয়। পাতিলেবুর রসে রয়েছে আরও নানা গুণ। শক্তি বাড়ায় পাতিলেবুর রস। ঘন ঘন সর্দি-কাশিতে উপকারী। এক গ্লাস পানিতে আধখানা পাতিলেবুর রস গুলে এক চামচ মধু মিশিয়ে খেলে বন্ধ নাক থেকে মুক্তি মেলে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ওজন কমায়। দাঁতব্যথা কমায়। ভাইরাসজনিত সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। চোখ ভাল রাখে। ত্বক পরিষ্কার রাখে। লিভার পরিষ্কার রাখে।

বাংলা/এবি

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

কিডনি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0195 seconds.