• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১১:১৬:৪৫
  • ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১১:১৬:৪৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মেসির গোলে বাঁচলো বার্সা

ছবি : সংগৃহীত

কোপা দেল রে’র প্রথম সেমিফাইনালে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি রিয়াল মাদ্রিদের মোকাবেলা করবে বার্সেলোনা। পুরো ফুটবলবিশ্ব তাকিয়ে এই ‘বিশেষ’ এল ক্লাসিকোর জন্য। কারণ এক মাসেরও কম সময়ের ব্যবধানে তিন তিনটি এল ক্লাসিকোয় মুখোমুখি হবে দুই স্প্যানিশ জায়ান্ট। যার প্রথমটি মাত্র চার দিন পরই মাঠে গড়াবে। তবে তার আগেই কি না নিজেদের মাঠে বড় ধরনের হোঁচট খেতে বসেছিল বার্সেলোনা।

শেষ পর্যন্ত মেসির গোলে কোনোমতে রক্ষা পেলো কাতালানরা। শেষ পর্যন্ত ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে একটি পয়েন্ট অন্তত রক্ষা করতে পারলো মেসির দল। বার্সার হয়ে জোড়া গোল করেছেন মেসি।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে বার্সেলোনার পয়েন্টের ব্যবধান দাঁড়িয়েছে ৬। যদিও একটি ম্যাচ কম খেলেছে অ্যাটলেটিকো। ২২ ম্যাচে বার্সার পয়েন্ট এখন ৫০। অ্যাটলেটিকোর পয়েন্ট ২১ ম্যাচে ৪৪। বার্সার সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে আনার দারুণ এক সুযোগ এখন অ্যাটলেটিকোর সামনে। তৃতীয়স্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের ২১ ম্যাচে পয়েন্ট হলো ৩৯।

ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে মাঠে নেমে শুরু থেকেই কোণঠাসা হয়ে পড়েছিল বার্সা। কারণ প্রথমে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে লিওনেল মেসির দল। সেখান থেকেই মেসির জোড়া গোলে কোনোমতে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারে স্বাগতিকরা।

ম্যাচের ২৪ মিনিটেই ভ্যালেন্সিয়াকে এগিয়ে দেন কেভিন গ্যামেইরো। রদ্রিগো মোরেনোর কাছ থেকে বল পেয়ে বক্সের মাঝ বরাবর থেকে ডান পায়ের দুর্দান্ত শটে বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগানকে পরাস্ত করেন গ্যামেইরো।

১-০ গোলে পিছিয়ে থাকার পর যেখানে বার্সার আরও বেশি জ্বলে ওঠার কথা, সেখানে যেন উল্টো উজ্জীবিত হয়ে উঠলো ভ্যালেন্সিয়ার ফুটবলাররা। যার ফলশ্রুতিতে ৩২ মিনিটে পেনাল্টি আদায় করে নেয় তারা। বক্সের মধ্যে ভ্যালেন্সিয়া ফুটবলার ড্যানিয়েল ওয়াজকে ফাউল করে বসেন সার্জি রবের্তো। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজালে স্পট কিক নিতে আসেন ড্যানিয়েল পারেয়ো। তার শট বাম পাশের কোন ঘেঁষে জড়িয়ে যায় বার্সার জালে।

ম্যাচের বয়স আধাঘণ্টা পার না হতেই ২-০ গোলে পিছিয়ে গেলো বার্সা। এমতাবস্থায় মেসির দায়িত্ব নেয়াছাড়া উপায় ছিল না। শেষ পর্যন্ত সেটাই করলেন তিনি। ৩৯ মিনিটে বক্সের মধ্যে বার্সার নেলসন সেমেদোকে ফাউল করে বসেন বার্সার টনি ল্যাটো। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজালে স্পট কিক নেন মেসি এবং তাতেই ব্যবধান দাঁড়ালো ২-১। এই অবস্থায় শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে আরেকটি দুর্দান্ত গোলে বার্সাকে সমতায় ফেরান মেসি। আর্তুরো ভিদালের পাস থেকে বল পেয়ে বাম পায়ের দারুণ এক শটে ভ্যালেন্সিয়ার জাল কাঁপিয়ে দেন মেসি। ২-২। এরপর ম্যাচের বাকি অংশে আর কেউ কারও জালে বল জড়াতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত ২-২ ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়লো বার্সা-ভ্যালেন্সিয়া।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বার্সেলোনা লিওনেল মেসি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0212 seconds.