• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৬ জানুয়ারি ২০১৯ ২২:৩৪:২৭
  • ০৬ জানুয়ারি ২০১৯ ২২:৩৪:২৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

সমাজতন্ত্রের সাথে ইসলামকে খাপ খাওয়াতে চীনে নতুন আইন

ছবি: ইন্টারনেট

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে চীনে ইসলাম ধর্মকে সমাজতন্ত্রের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করে তোলা হবে। এজন্য দেশটিতে একটি আইন পাস করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মুসলমানদের ধর্মচর্চায় এটি একটি নতুন বাধা হিসেবে আবির্ভূত হতে পারে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

শুক্রবার আটটি ইসলামী সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এসময় তারা ইসলাম ধর্মকে চীনা সমাজতন্ত্রের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে একমত হয়েছেন। ইসলাম ধর্মের চীনা রূপ দেয়ার জন্য তারা একটি আইন প্রণয়নেও রাজি হয়েছেন। শনিবার চীনের প্রধান ইংরেজি দৈনিক গ্লোবাল টাইমসের এক রিপোর্টে এ কথা বলা হয়েছে।

তবে রিপোর্টে আট মুসলিম সংগঠন নিয়ে বিস্তারিত কিছু উল্লেখ করা হয়নি।

সাম্প্রতিক কয়েক বছরে চীন মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের ওপর দমনপীড়ন বাড়িয়ে দিয়েছে। চীনের কমিউনিস্ট সরকারের ধর্মবিরোধী পদক্ষেপগুলোতে এটি নতুন সংযোজন।

পশ্চিমা মানবাধিকার সংগঠনগুলোও দাবি করে আসছে যে, চীনের অনেক জায়গায় মুসলমানদের ধর্ম পালনে বাধা দেয়া হচ্ছে। কিছু কিছু এলাকায় নামাজ-রোজার পাশাপাশি দাড়ি রাখায় বা হিজাব পরায় অনেককে গ্রেপ্তারের হুমকির মুখেও পড়তে হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

দেশটির দশ লাখ উইঘুর মুসলিমকে বিভিন্ন ক্যাম্পে আটকে রেখে ধর্মচর্চায় বাধা দিয়ে পুরোপুরি বদলে দেয়ার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের জোর করে কম্যুনিস্ট মতাদর্শে আস্থাশীল করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে ধারনা জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার। এসব বন্দিশিবিরের নাম দেয়া হয়েছে ‘পুন:শিক্ষণ শিবির’।

বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাগুলো বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে জাতিগতশুদ্ধ অভিযান চালানোর অভিযোগ তুলেছে। তবে চীন বরাবর এসব অভিযোগ প্রত্যাখান করে বলেছে, তারা সংখ্যালঘুদের ধর্ম ও সংস্কৃতিকে সুরক্ষা দিচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0197 seconds.