• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ১১:৩৮:৪৯
  • ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ১১:৩৮:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

স্ত্রী-সন্তানদের ভুলতে খেলাতেই মগ্ন সোহেল

ছবি : সংগৃহীত

বুধবার, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দর্ষকও খুব একটা ছিলো না। নিরিবিলি পরিবেশ। স্টেডিয়ামের দক্ষিণ গ্যালারিতে আনমনে মাঠের দিকেই তাকিয়ে আছেন শেখ রাসেলের গোলকিপার সোহেল রানা। প্রিয়তমা স্ত্রী ও সন্তানকে হারিয়ে আজ বড় একা তিনি। তাইতো বুকে পাথর চেপে সতীর্থদের খেলা দেখতে মাঠে এসেছেন।

সোহেলের কথায়, ‘বাড়িতে থাকলে শুধু ঝুমা ও আফরানের কথা মনে পড়ে। তাদের স্মৃতি আমাকে কাঁদায়। তাই ঢাকায় চলে এসেছি। ক্লাবে থাকলে সতীর্থদের সঙ্গে কথা বলি। একসঙ্গে গল্প করি। খাই। এভাবেই ওদের (স্ত্রী ও পুত্র) স্মৃতি ভুলে থাকার চেষ্টা করি।’

গত ২৪ নভেম্বর সাভারের নয়ারহাটে ভয়াবহ এক সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই সোহেল রানা তার স্ত্রী ঝুমা খাতুন ও তিন বছরের একমাত্র ছেলে আফরানকে হারান। মানিকগঞ্জের গ্রামের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে ফেরার সময় পেছন থেকে একটি ট্রাক সোহেল রানার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্ত্রী ও ছেলেকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ অবস্থায় ছিলেন সোহেল রানা। তিনদিন আগে ঢাকায় ফিরেছেন। ক্লাবের টেন্টে এসে সতীর্থদের সঙ্গে সময় কাটাতে শুরু করেন।

দু’দিন অনুশীলনও করেছেন। কাল আসলেন খেলা দেখতে। ডাগ আউটে নয়, তিনি বসেন দক্ষিণ দিকের গ্যালারিতে। দল চ্যাম্পিয়ন হলে ভালো লাগত বলে জানান সোহেল। তার কথায়, ‘এসেছিলাম দলের সঙ্গে উদযাপন করতে। কিন্তু হল না যখন, তখন আর কী করা। আমারও মনটা খারাপ হয়ে গেছে। তবে মনে হয়, নিজে খেলতে পারলে ভালো লাগত। কিন্তু খেলতে পারলাম না। এখন অপেক্ষায় আছি। যদি ক্লাব ছুটি দেয়, তাহলে আবার গ্রামে যাব।’

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0656 seconds.