• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৪:২৪:৪০
  • ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৪:২৪:৪০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‌‌‌পাওনা টাকা ফেরতের কথা বলে বাড়িতে এনে হত্যা!

ছবি- সংগৃহীত

পাওনা টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলে বাড়িতে ডেকে ভাড়াটে খুনি দিয়ে একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে যশোর জেলায়।

নিহত জাহিদুল ইসলাম জাহিদ (২৮) জেলার শার্শা উপজেলার পোড়াবাড়ী নারায়ণপুর গ্রামের আব্দুর জব্বার তরফদারের ছেলে। বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট সেজুতি এন্টারপ্রাইজের ব্যবস্থাপক ছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ভোরে কাজীরবেড় গ্রামের একটি কলাবাগান থেকে তার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আটক করা হয়েছে ছয়জনকে।

আটককৃতরা হলেন কাজীরবেড় গ্রামের ঝড়ু ও তার স্ত্রী বিউটি খাতুন (৪৭), মেয়ে সুমী খাতুন (২৯), মুক্তার আলীর স্ত্রী রহিমা বেগম (৬৫), খালিদের স্ত্রী ফেরদৌসী বেগম (৩৭) ও ছেলে আল-আমিন (১৮)।

স্বজনদের বরাতে শার্শা থানার ওসি এম মশিউর রহমান বলেন, জাহিদ বিদেশ যাওয়ার জন্য ঝড়ু দালালের স্ত্রী বিউটি খাতুনকে চার লাখ টাকা দেন। কিন্তু বিদেশ না পাঠিয়ে তালবাহানা করেন। বুধবার রাতে টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলে জাহিদকে বাড়িতে ডেকে নেন বিউটি।

“সকালে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের বিউটি স্বীকার করেন, পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী তিনি যশোর থেকে চারজন ভাড়াটে খুনি এনে বাসায় রাখেন। জাহিদ আসার পরে তাকে বাথরুমে নিয়ে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ বস্তায় করে পাশের একটি কলাবাগানে ফেলে দেন।”

বাংলা/এআর

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1647 seconds.