• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ২০:৪১:১৬
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ২০:৪১:১৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মির্জা ফখরুলের অভিযোগ

‘জামিন না দিতে জজদের নিয়ে মন্ত্রণালয়ে গোপন বৈঠক’

ছবি: সংগৃহীত

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,‘আমরা বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পেয়েছি, জেলা দায়রা জজদের নিয়ে একটি সভা হয়েছে, আইন মন্ত্রণালয়ে বৈঠক হয়েছে। সেখানে ‘অত্যন্ত স্বনামধন্য’ সচিব নির্দেশ দিয়েছেন যে, নির্বাচনের পূর্বে তারা যেন জামিন না দেন। এই কথাগুলো অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছে।’

বুধবার দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে একথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচন ক্রমেই প্রহসনে পরিণত হতে চলছে। নির্বাচনী ব্যবস্থা এবং নির্বাচন কমিশনকে নিয়ন্ত্রণে রেখে সরকার আবার ক্ষমতায় যেতে চায়। সেজন্য বিরোধী দলের ওপর অত্যাচার নির্যাতন-নিপীড়ন এবং যত রকম কৌশল আছে সরকার প্রয়োগ করছে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর থেকে গ্রেপ্তারের পরিমাণ বেড়ে গেছে। গতকাল পর্যন্ত ১ হাজার ৯৭২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা নির্বাচনে এসেছি, আমাদের আন্দোলনের অংশ হিসেবে। একদিকে আমাদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আটক করে রেখেছে, হাজার হাজার নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করে রেখেছে। আমরা জোর দিয়ে বলছি, অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হোক, আটক নেতাকর্মীদের মুক্ত করা হোক।’

হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ফখরুল বলেন, ‘আমি স্পষ্ট করে নির্বাচন কমিশনকে বলতে চাই, আপনারা যদি দায়িত্ব পালন করতে না পারেন তাহলে মৌলিক নীতিগত অবলিগেশন থাকে দেশবাসীর কাছে বলুন, আমরা নিরপেক্ষভাবে, মুক্তভাবে, স্বাধীনভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারছি না। তাহলে আপনাদের দায়িত্ব যেটা পদত্যাগ করা উচিৎ। অন্যথায় সংবিধান আপনাদের যে দায়িত্ব দিয়েছে সেই দায়িত্ব নিয়ে আপনারা নির্বাচনটাকে নিরপেক্ষ করার সমস্ত ব্যবস্থা করুন।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আমরা কমিশনকে বারবার বলেছি, আপনাদের দায়িত্ব পালনে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো। কিন্তু সরকারের মন্ত্রী ও সরকারি দলের নেতা যা বলবেন সেইভাবে আপনারা কাজ করবেন, তাহলে এ নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না।’

সরকারি দল প্রতিদিন সভা সমাবেশ করছে কিন্তু ইসি কিছুই করছে না দাবি করে বিএনপির ফখরুল বলেন, ‘আপনারা যদি দায়িত্ব পালন না করতে পারেন তাহলে দেশবাসীকে বলুন যে স্বাধীনভাবে আমরা দায়িত্ব পালন করতে পারছি না। দায়িত্ব পালন না করতে পারলে পদত্যাগ করা উচিত। অন্যথায় সংবিধান আপনাদের যে দায়িত্ব দিয়েছে সেই দায়িত্ব নিয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। আপনারা দায়িত্ব পালন করলে আমরা সাহায্য করব। দেশের মানুষ সুষ্ঠু নির্বাচন চায়।’

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

মির্জা ফখরুল গোপন বৈঠক

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1616 seconds.