• ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ২০:১৭:৪৬
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ২০:২১:৫৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শীতে শুষ্ক ত্বকের যত্ন

ছবি: সংগৃহীত

রাফিয়া তাসনীম:

চলছে শীতের  মৌসুম। শীতের সাথে সাথে ত্বকের সমস্যাগুলোও বাড়তে শুরু করেছে। ত্বক বিশেষজ্ঞরা শীতকালে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা ‍নিয়ে দিয়েছেন নানা সমাধানও। সেসব নিয়েই আজকের আলোচনা।

শীতকালে ত্বকের সমস্যাগুলোর মধ্যে প্রধান সমস্যা হলো ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া। শীতে বাতাসের আর্দ্রতা কম থাকায় এমনটি হয়ে থাকে। ফলে ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য ও লাবণ্য হারিয়ে যায়।

যদিও অনেকে মনে করেন, শীতে ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া খুব স্বাভাবিক। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে এটা স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় মারাত্মক প্রভাব ফেলে। যেমন: প্রচুর চুলকানি হয়, ত্বক ফেটে যায়, ব্যথা হয়, এমনকি রক্তক্ষরণও হতে পারে। এছাড়া, ডার্মাটাইটিস, ত্বক লাল ও প্রচন্ড খসখসে হয়ে যাওয়াসহ বিভিন্ন ধরনের চর্মরোগ দেখা দিতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা শীতকালে ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বাজারে বিভিন্ন ধরনের ময়েশ্চারাইজার ও ক্রিম লোশন পাওয়া যায়। এসবের পাশাপাশি ঘরে তৈরি বিভিন্ন ধরনের প্যাক ব্যবহার করা যেতে পারে।

ঘরে তৈরি বিভিন্ন প্যাকের শুরুতেই আসে নানা ধরনের তেলের কথা। শুষ্ক ত্বকের পরিচর্যায় বিভিন্ন ধরনের তেলের জুড়ি নেই। তেল ত্বকের আর্দ্রতাকে ধরে রাখতে পারে এবং ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে। নারকেল তেল, সরিষার তেল, অলিভ অয়েল, ভিটামিন ই সমৃদ্ধ তেল ত্বকের জন্য অনেক উপকারি।

তেলের সাথে বিভিন্ন ধরনের উপাদান মিশিয়েও ব্যবহার করা যেতে পারে। যেমন: ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েলের সাথে হাফ কাপ চিনি মিশিয়ে ত্বকে ভালোভাবে ম্যাসাজ করে কিছুক্ষণ রেখে দিন। এরপর পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিতভাবে এই স্ক্রাবটি ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

মধুর উপকারিতা সম্পর্কে কে না জানে। মধুর অনেকগুলো গুনের মধ্যে একটি হলো, ত্বককে ময়েশ্ট ও উজ্জ্বল করে তোলা। মধু সরাসরি ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া মধুর সাথে ১/২ চামচ আনারস, তরমুজ বা আপেলের রস মিশিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।

রূপচর্চায় মুলতানি মাটির জনপ্রিয়তা অনেক। সাধারণত এটি অয়েলি ত্বকে ব্যবহার করা হয়। কিন্তু, ২ চামচ মুলতানি মাটির সাথে ১ টেবিল চামচ মধু ও ১ টেবিল চামচ শশার রস মিশিয়ে ব্যবহার করলে ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা এবং লাবণ্য ফিরে আসবে।

দ্রুত ফল পাবার জন্য গ্লিসারিনের সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে শুষ্ক স্থানে লাগিয়ে কয়েক ঘন্টা রেখে দিন। অথবা তুলার সাথে শুধু গোলাপ জল মিশিয়ে পুরো মুখে ভালভাবে ম্যাসাজ করুন। এতে ত্বকের অয়েল ব্যাল্যান্স ঠিক থাকবে।

শীতের দিনে সবাই গরম পানি দিয়ে গোসল করতে চায়। কিন্তু গরম পানি ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ। তাই বেশি গরম পানি ব্যবহার না করে কুসুম গরম পানি ব্যবহার করতে হবে। সেইসাথে সাবান কম পরিমানে ব্যবহার করতে হবে। গোসলের পরে নিয়মিতভাবে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

 যদি ময়েশ্চারাইজার, ক্রিম, লোশান ও ঘরের তৈরি  বিভিন্ন প্যাক ব্যবহারের পরও ত্বক স্বাভাবিক না হয়, তাহলে অবশ্যই ডাক্তার এর পরামর্শ নিতে হবে। সূত্র: হেলথনিউজ টুডে, হেলথলাইন ও স্টাইলক্রেজ।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ত্বক যত্ন শীত

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1625 seconds.