• ফিচার ডেস্ক
  • ২৩ নভেম্বর ২০১৮ ১৪:২৫:৫৫
  • ২৩ নভেম্বর ২০১৮ ১৭:৪১:২২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রং মিস্ত্রিকে ভালোবেসে চলে এলেন মার্কিন তরুণী

ছবি : সংগৃহীত

 


বরিশাল প্রতিনিধি:


গত ২০১৭ সালের ১৯ নভেম্বর তারিখে ফেসবুকের একটি বিতর্ক (ডিবেট) গ্রুপের মাধ্যমে প্রথম পরিচয়, এরপর নিয়মিতভাবে ফেসবুক চ্যাটিং, আর ভিডিও কলে কথা। এভাবে কথা বলতে বলতে দু’জনের মধ্যে ভালবাসার প্রথম বীজ বপন। তারপরে ব্যক্তিগত সম্পর্ক থেকে রূপ নেয় পারিবারিক সর্ম্পকে। টানা এক বছরের সম্পর্কে বিয়ের পিড়িঁতে এসে পৌঁছায় তারা। 

পুরোদমে শেষ হয় দুজনের মধ্যে বিয়ের প্রাথমিক আনুষ্ঠানিকতা। এমন ভালবাসার গল্প আর বিয়ের কথা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের মিনাসোটা শহর থেকে বরিশাল নগরে ছুটে আসা সারা মেরিয়ান ও বরিশাল নগরের ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউনিয়ার প্রধান সড়কের খ্রিস্টানপাড়া এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মাইকেল অপু মণ্ডল। সারা মেরিয়ান যুক্তরাষ্ট্রের মিনাসোটা শহরের একটি বৃদ্ধাশ্রমের সেবিকা আর মাইকেল অপু মন্ডল পেশায় একজন রং মিস্ত্রি। 

কিন্তু তাদের সর্ম্পকের বাস্তবরূপ নেয় ,গত ১৯ নভেম্বর ঢাকার হযরত শাহজালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অপুর সাথে সারার  প্রথম সরাসরি সাক্ষাতে। ঐদিনই অপু সারা কে নিয়ে লঞ্চযোগে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওনা হন । সারা কে কাছে পেয়ে ফুলের শুভেচ্ছা জানায় অপুর পরিবার। এরপর বৃহস্পতিবার শুরু হয়, গায়ে হলুদ, আংটি পরিধান, চার্চের ফাদারের আর্শিবাদ গ্রহণসহ যাবতীয় খ্রিস্টান ধর্মীয় আচার্য পালন করে দুইদিন ব্যাপী বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। পুরো অনুষ্ঠানে সারা শাড়ি পরিধান করে ধীরগতিতে বাংলা ভাষায় কথা বলায় নজরে আসে সবার। এ রোমান্সকর প্রেমের কাহিনীর  খবর ফেসবুকে ভাইরাল হলে আংটি বদল অনুষ্ঠানে ভীড় জমায় বরিশাল নগরের কাউনিয়ার এলাকার সব বয়সী মানুষ।

অপু আরো জানায়, ‘চলতি বছরের সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে আমার ও সারা’র পরিবারের সম্মতিতে উভয় মিলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেই। সারা কে বিয়ে করতে যুক্তরাষ্ট্রে আমার যাওয়ার সুযোগ না হলে, গত কয়েক মাস ধরে ভিসা প্রসেসিং শেষে বিমানযোগে গত ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশে আসে সারা। এরপর সারা কে বরিশালে নিয়ে এসে বৃহস্পতিবার  খ্রিস্টান ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী আমাদের মধ্যে আংটি বদলের মাধ্যমে বিয়ের প্রাথমিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।’

তিনি আরো জানিয়েছেন, ‘আগামী ২৭ নভেম্বর সারা  তার নিজ দেশে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাবে।  ওখানে গিয়ে সারা আমার জন্য ভিসার আবেদন করবেন। পরবর্তীতে কোনো এক সময় ফের বাংলাদেশে এসে বিয়ের চূড়ান্ত আনুষ্ঠানিকতা শেষে আমাকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাবেন।’
  
সারা মেরিয়ান জানান, ‘অপুর প্রেমের টানেই তিনি বাংলাদেশে আসছি। আমার আর অপুর বিয়ের প্রাথমিক আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। অপুর পরিবারের সবাইকে ভালো লেগেছে। বরিশালের প্রকৃতিও তাকে মুগ্ধ করেছে।’

বাংলা/এসি

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1624 seconds.