• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৮ ১২:৫১:০৩
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৮ ১২:৫১:০৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বন্ধু ‘সেলিব্রেটি’ হলে কী করবেন?

ছবি : সংগৃহীত


মিঠুন আল মামুন


তারকাদের কি বন্ধু থাকতে নেই? তাদের কি শৈশব কৈশোর ছিল না! তারাও তো খেলার ছলে করেন কত দুষ্টুমি। সে সব গল্প যদি ফাঁস হয়ে যায়। কিংবা শৈশবের প্রেমটাই ফাঁস হয়ে গেল। বিপাকে পড়তে হয়, প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় মুহূর্তেই। তাইতো তারকা হয়ে উঠলে কাছের বন্ধু নির্বাচনও করতে হয় খুব সাবধানে। শোবিজের বহু তারকা আছেন যাদের সবচেয়ে কাছের বন্ধু মিডিয়ার বাইরের কেউ। তার সঙ্গে শোবিজের নেই কোন সম্পর্ক। অথচ একটু সময় পেলেই তারা সময় কাটান। কত কিছুই না শেয়ার করেন। 

সাম্প্রতিক সময়ের দারুণ জনপ্রিয় এক নায়িকার বন্ধু জায়েদ (ছদ্মনাম)। একই স্কুলে পড়েছেন বলে অভিনেত্রী বান্ধবীর সঙ্গে সখ্যটাতা বেশ। বন্ধু যখন তারকা হয়ে উঠলেন, তখন মাঝেমধ্যেই বেশ বিপত্তিতে পড়েন তিনি। তারকা বান্ধবীর সঙ্গে ঘুরতে যাওয়ার ছবিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করলে অন্যদের কটু কথাও শুনতে হয় কমেন্টে। মাঝেমধ্যে তিনিও হয়ে যাচ্ছেন নিউজের খোড়াক। কি বিপদরে বাবা!

তারকাকে যখন প্রশংসা করা হয়। তখন বন্ধুর ভালোই লাগে। কিন্তু তারকার সকেল খোজ খবর দেয়াও যেন তাঁর দায়িত্ব। তারকার হাঁড়ির খবর না দিলে তার উপর অনেকে রাগান্বিতও হয়ে যায়।  তারকা বন্ধুই কোনো কোনো ক্ষেত্রে গলার কাঁটা হয়ে ওঠেন জায়েদের জীবনে। বন্ধু যখন তারকা হয়ে ওঠেন, তখন আমরা মাঝেমধ্যেই জায়েদের মতো পরিস্থিতিতে পড়ি। তারকা বন্ধুকে নিয়ে পড়তে হয় বিব্রতকর পরিস্থিতিতেও। বন্ধুকেও কিছু বলা যায় না, আবার এমন সব ঘটনাও ঘটতে থাকে- চলে মন নাওয়ের দোটানা!

মানুষ তারকাদের গসিপ-স্ক্যান্ডাল-প্রেম নিয়ে কথা বলতে পছন্দ করেন, তাই তারকাদের কাছের বন্ধুর খোঁজ পেলেই অন্যদের আগ্রহ বেড়ে যায়। শুধু টেলিভিশন-সিনেমার তারকা নন, ক্রিকেটার, লেখক, করপোরেট দুনিয়ার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বদের বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সদস্যদের মুখোমুখি হতে হয় কত উটকো ঝামেলায়।  সেক্ষেত্রে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে পারেন।

১. জনসমক্ষে তারকা বন্ধুকে চেনেন-জানেন এমন ‘শো অফ’ করা থেকে বিরত থাকুন।

২. সংবাদমাধ্যমে কোনো ধরনের সংবাদ বা ছবি দেখে প্রতিক্রিয়া দেখানোর সময় দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিন।

৩. তারকা বন্ধুর নামে এমন কোনো গসিপ ছড়ানো ঠিক নয়, যা বন্ধুর পেশাজীবনকে প্রভাবিত করে।

৪. ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তারকা বন্ধুর নামে নেতিবাচক পোস্ট, ছবি দেখলে পরিস্থিতি বুঝে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিন।

৫. সাধারণত গসিপ বা উড়ো খবর তারকারা কানেই নেন না। আপনার বন্ধু কেমন মানুষ, তার ওপর নির্ভর করে উড়ো খবর নিয়ে তাঁর সঙ্গে গল্প করতে পারেন।

৬. পারিবারিক আড্ডায় তারকা বন্ধুকে তারকা না ভেবে বন্ধুর মতো আচরণ করুন।

৭. বন্ধুর ব্যক্তিগত তথ্য কেউ জানতে চাইলে না প্রকাশ করাই মঙ্গল।

৮. কোনো সংবাদমাধ্যম বন্ধু সম্পর্কে তথ্য জানতে চাইলে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিন। এমন তথ্য দেবেন না, যেন বন্ধুর ওপর চাপ সৃষ্টি হয়।

৯. বন্ধুর পারিবারিক-দাম্পত্য অবস্থান, ফেসবুক আইডি কিংবা ফোন নম্বর জনসমক্ষে কাউকে কখনোই জানানো ঠিক না।

১০. তারকা বন্ধুর নামে কেউ খারাপ কথা বললে অযথা রাগ দেখানো কিংবা মেজাজ দেখাবেন না।

বাংলা/এসি

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

সেলিব্রেটি বন্ধু

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1636 seconds.