• ফিচার ডেস্ক
  • ২৪ অক্টোবর ২০১৮ ২৩:১৯:৩০
  • ২৪ অক্টোবর ২০১৮ ২৩:১৯:৩০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শীতের শুরুতেই ত্বকের যত্নে বাড়তি সচেতনতা

ছবি: সংগৃহীত

শীতের আগমনী বার্তা আসতে শুরু করেছে। রাজধানীতে তেমন বোঝা না। কিন্তু গ্রামে কিছুটা শীত অনুভূত হচ্ছে। শীতের সময় ত্বকের নানাবিধি সমস্যা হয়ে থাকে।

কারণ শীতের সময় বাতাসে আর্দ্রতা থাকায় ত্বক একটু বেশিই শুষ্ক হয়ে পরে। আবার ঘর থেকে বাইরে বের হলেই ধুলোবালির ছড়াছড়ি। তাই সারা দিনের ক্লান্তি শেষে বাসায় ফিরে দরকার ত্বকের বিশেষ যত্ন। তা না হলে ত্বকে ব্রণ, ছোপ ছোপ কালো দাগ প্রভৃতি সমস্যা অনিবার্য।

তাই ত্বকের প্রতি বাড়তি নজর দিলে এই শীতেও আপনা ত্বক থাকবে মসৃণ-স্বাস্থ্যজ্জ্বল। সঙ্গে রঙ্গিন শাক, সবজি, ফল এবং বিশুদ্ধ পানি পানের অভ্যাসটা ধরে রাখতে হবে এ শীতেও।

আসুন জেনে নেই শীতের সময় কি করবেন...

ত্বকের যত্মে ময়েশ্চারাইজ:

 শীতে ত্বকের যত্নের শুরুতে একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার বেছে নিন। বাজার থেকে বাদাম তেল বা এভাকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার কিনুন। এগুলো ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। যতবার ত্বক শুষ্ক মনে হবে ততবার ব্যবহার করুন। সানস্ক্রিন ব্যবহার শীত আসছে বলে ভাববেন না যে সানস্ক্রিন ব্যবহার করার প্রয়োজনীতা কমে গেছে। শীতকালেও বাইরে বের হওয়ার ৩০ মিনিট আগে এসপিএফ ১৫-৩০ সম্পন্ন সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

সঠিক আর্দ্রতা: 

শীতকালে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় মাঝে মাঝে মুখে পানির ঝাপটা দিন। সহজে ত্বক শুষ্ক হবে না। অতিরিক্ত গরম পানি ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন গোসলের সময় আরাম অনুভব হলেও অতিরিক্ত গরম পানি দিয়ে মুখ, মাথা ধোয়া থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ, অতিরিক্ত গরম পানি মুখের ত্বকের ফলিকলগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত করে ফেলে যা ত্বককে আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। গোসলের সময় পানিতে কয়েক ফোঁটা জোজোবা বা বাদাম তেল দিয়ে নিলে তা ত্বককে আর্দ্র এবং মসৃণ করতে সহায়তা করে।

ঠোঁটের পরিচর্যা:

 কখনোই জিভ দিয়ে ঠোঁট ভেজানো উচিত নয়। কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল মধুর সঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালে ঠোঁট কখনোই ফেটে যাবে না। মেকআপ করার সময়: মেকআপ করার সময় লিক্যুইড ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন না। শীতকালে ক্রিম ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন।

চুলের যত্ন: 

শীতকালে কখনোই ভেজা চুলে বাইরে বের হওয়া উচিত নয়। এতে করে চুলের আর্দ্রতা নষ্ট হয় এবং চুল ভেঙে যায়। হ্যাট পরুন চুল এবং মাথার তালুর আর্দ্রতা ধরে রাখতে হ্যাট পরুন। তবে হ্যাটটি যাতে বেশি টাইট না হয় সে দিকে খেয়াল রাখবেন। হাত ও পায়ের যত্নৱ হাত এবং পায়ের আর্দ্রতা ধরে রাখতে যতবার প্রয়োজন ততবার লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

ভেজা ত্বকের পরিচর্যা: 

গোসলের পর এবং প্রতিবার মুখ ধোয়ার পর ভেজা অবস্থায় ময়েশ্চারাইজার বা লোশন ব্যবহার করুন। এতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

বাংলা/এবি

 

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

শীত ত্বক স্বাস্থ্য

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1621 seconds.