• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৮ অক্টোবর ২০১৮ ১২:১১:৫৯
  • ০৮ অক্টোবর ২০১৮ ১২:১১:৫৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বাবা-মায়ের স্বপ্ন ভাঙলো পুচকে শিশুটি!

ছবি : সংগৃহীত

টাকা পয়সা যত সাবধানে রাখা যায় ততই ভালো। বাড়িতে বাচ্চা ছেলেমেয়ে থাকলে কথাই নেই। কিন্তু সে সাবধানবাণী তো অনেকই রয়েছে। কিন্তু শোনে আর কজন। এমনই এক অসাবধানতার জেরে খেসারত দিতে হল এক মার্কিন দম্পতিকে।

যুক্তরাষ্ট্রের উটার বাসিন্দা জ্যাকি এবং বেন বেনলাপ। প্রায় এক বছর ধরে তারা টাকা জমাচ্ছিলেন স্থানীয় ফুটবল লিগের সিজন টিকিট কিনবেন বলে।

টাকা জমিয়ে রেখেছিলেন একটি খামে। একদিন বাদেই টিকিট কিনতে যাওয়ার কথা। সেই মতো খামটিকে টেবিলের উপর রেখে কাজে বেরিয়ে যান দুজনেই। কিন্তু কপালে না থাকলে কি আর ভালো কিছু পাওয়া যায়?

দম্পতির কষ্টের সেই সঞ্চয়ে হয়তো রাহুর দৃষ্টি ছিল। খামটি চলে যায় বছর দুইয়ের ডানপিটে ছেলে লিওর হাতে। প্রথমে সে খামটিকে ভালো করে দেখে। কী জিনিস বুঝতে না পেরে একটি যন্ত্রের মধ্যে ফেলে কুচি কুচি করে কাটে। তারপর এক জায়গায় মার্কিন ডলারের দেহাবশেষ জড়ো করে ঘটনাস্থল থেকে কেটে পড়ে।

বাড়ি ফিরে এই কাণ্ড দেখে চক্ষু চড়কগাছ বেনের। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে তিনি জানান, ওই খামটির ভেতরে ১ হাজার ৬০ মার্কিন ডলার ছিল। বাংলাদেশের বাজারে যার অর্থমূল্য প্রায় ৮০ হাজার টাকা।

এত টাকা একসঙ্গে এভাবে নষ্ট হওয়ায় বেশ দুঃখই পেয়েছেন। নেটিজেনরা অবশ্য এতে দুঃখের চেয়ে মজাই বেশি পাচ্ছেন। খুদের কীর্তিকে অনেকেই হাসি ঠাট্টার ছলে নিচ্ছেন।

এসবের মধ্যে ওই দম্পতির একটি সান্ত্বনার কারণও রয়েছে অবশ্য। এসব ছেড়া নোটের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সরকারের আলাদা দপ্তর আছে। সেখানে নোটের ছেড়া অংশগুলো জমা দিলে এক-দু বছরের মধ্যেই তারা টাকা ফেরতও পেয়ে যাবেন!

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1646 seconds.