• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:২৯:৫৮
  • ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:২৯:৫৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

'দেশের গনতন্ত্রের মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে রিজেন্ট গ্রুপ'

ছবি: সংগৃহীত

গণমানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা, সামাজিক উন্নয়ন, দেশের গনতন্ত্রের মান উন্নয়নে কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান, গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্ব, সেন্টার ফর পলিটিক্যাল রিচার্জের কর্নধার মোঃ শাহেদ।

তিনি দেশ ও মানুষের উন্নয়নের জন্য গড়ে তুলেছেন হাসপাতাল, গনতন্ত্রের উন্নয়নে রাজনৈতিক পরিক্ষাগার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে সামাজিক ও কর্মসংস্থান মুলক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। কথা হয় তার সাথে। জানান জানা অজানা কিছু কথা। 

মো. সাহেদ একজন গণমাধ্যম প্রিয় আলোকিত মনের মানুষ। মিডিয়ার তাকে অনেকেই চেনেন একজন রাজনৈতিক আলোচক হিসেবে। কিন্তু তার এই পরিচিতি ও জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যক্তিত্বের অন্তরালে লুকিয়ে আছে অসংখ্য মানবিক গুনের অধিকারি সফল একজন মানবিক শাহেদের গল্প।

নিজের হাতে গড়ে তুলেছেন রিজেন্ট হাসপাতাল, উচ্চ শিক্ষার জন্য গড়ে তুলেছেন ঢাকা সেন্ট্রাল কলেজ। তার হাসপাতালের দুটি শাখা, ও কলেজ পরিচালিত হয় সম্পূর্ণ অলাভজনক ভাবে।

প্রতিনিয়ত ভর্তুকী দিয়ে এসব মানবিক ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছেন তিনি। তার হাসপাতালে সামর্থ্যবান রোগী আর অসচ্ছল রোগীরা সমান সেবা পায়। গরীব রোগীরা চিকিৎসার পাশাপাশি ওষুধও পায় নাম মাত্র মুল্যে বা বিনামূল্যে। হাসপাতালের কর্মীদের প্রতি মো. সাহেদের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে, অর্থের কারণে কোনো রোগী যেনো চিকিৎসা না পেয়ে ফেরত যায়।

নিজের মায়ের স্মৃতির উদ্দেশ্যে গড়ে তোলা রিজেন্ট হাসপাতাল, হাসপাতালের দুটি শাখাই তার অনুপ্রেরণায় সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ চিকিৎসক ও কর্মচারীরা।

তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও অসংখ্য গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীরা পাচ্ছেন উচ্চশিক্ষার সু্যোগ।

দৈনিক নতুন কাগজ নামের একটি জনপ্রিয় দৈনিকের সম্পাদনার দায়িত্বও পালন করেন মো. সাহেদ। নতুন কাগজ অনলাইন এখন লাখো পাঠকের নির্ভর তথ্যের আস্থার সংবাদ মাধ্যম হিসেবে দেশ বিদেশের পাঠকদের মন জয় করতেও সক্ষম হয়েছে। লেখালেখির জগতেও রয়েছে তার গুরুত্বপুর্ণ অবস্থান মহান একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে মো. সাহেদের প্রবন্ধগ্রন্থ ‘নির্বাচিত সম্পাদকীয়’।

গ্রন্থটিতে স্থান পেয়েছে ৭টি গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ- ১. যানজট সঙ্কট: চাই কার্যকর সমাধান ২. পদ্মা সেতু: দৃশ্যমান বাস্তবতা ৩. পদ্মা সেতু: বিশ্বব্যাংক বনাম বাংলাদেশ ৪. বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধির হার অব্যাহত থাক ৫. নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ : নতুন সম্ভাবনা ৬. জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ: দৃশ্যমান জিরো টলারেন্স এবং ৭. তথ্য প্রযুক্তির সফল সূচকে বাংলাদেশ। বোদ্ধা পাঠকের প্রশংসা কুড়িয়েছে প্রবন্ধ গ্রন্থটি।

রাজনীতির সাথেও গভীরভাবে জড়িত আছেন মো. সাহেদ। যোগ্যতা আর দক্ষতার স্থান করে নিয়েছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের হাতে গড়া ঐতিহ্যবাহী দল আওয়ামী লীগের পররাষ্ট্র বিষয়ক উপকমিটিতে। এছাড়া প্যারা অলিম্পিক কমিটির কার্যকরী সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে চলেছেন তিনা।

মো. সাহেদের মানবিক কাজের অনেক উদাহরণ আছে দেশের বহু মানুষের কর্মসংস্থান, চিকিৎসা, মেয়ের বিয়ের খরচ, সন্তানের শিক্ষা ব্যয় দেয়া অসামান্য মানবিক গুনের নিত্যনৈমিত্তিক একটি অংশ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মো. সাহেদ কে আওয়ামীলীগের আর্ন্তজাতিক উপ- কমিটির সদস্য করেছেন। রাজনীতির সাথে যুক্ত থেকেও তিনি সৎ ও একজন আলোকিত মানুষ। সাংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ইচ্ছা আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, “এমন ইচ্ছা কখনো করিনা” তবে এলাকার মানুষের কাছে সাহেদের জনপ্রিয়তা বিস্তর। এলাকার অসংখ্য সাধারন মানুষ তাকে তাদের উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য আগামী নির্বাচনে এমপি হিসাবে হিসেবে দেখতে চায়।

মো. সাহেদের হাত ধরে রিজেন্ট গ্রুপ দেশ ও মানুষের কল্যানে সমাজকে সামনে এগিয়ে যাবে, ও তার মানবিক গুনে ও ত্যাগী প্রচেষ্টায় সমৃদ্ধ হবে বাংলাদেশ এমনই প্রত্যাশা তার অসংখ্য ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীর।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

রিজেন্ট গ্রুপ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1644 seconds.