• বিনোদন প্রতিবেদক
  • ১০ জুলাই ২০১৮ ২০:৪৩:২৫
  • ১১ জুলাই ২০১৮ ১৩:৫১:৩৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শ্যুটিং বন্ধের বিষয়ে যা বললেন অনন্য মামুন

ছবি: সংগৃহীত

কাজের অনুমতি না থাকায় বিদেশি শিল্পীদের শ্যুটিং বন্ধ করে দিয়েছে ডিরেক্টরস গিল্ড। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরার একটি শ্যুটিং স্পটে ‘ফোন-এক্স’ নামের ওয়েব সিরিজের কাজ চলছিল। যার পরিচালক অনন্য মামুন।

এ বিষয়ে অনন্য মামুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলা'কে বলেন, ‌‘আমার ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং তো বন্ধ করা হয়নি। দিব্যি সব ঠিকঠাক চলছে।’

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে অনন্য মামুন জানান, ‘‘আইন মেনে কাজ নাকি শিরোনামে থাকা’ তথ্য গুলো না দিয়ে পারলাম না। এটা বড় বাজেটের ওয়েব সিরিজ করছি। যা তিনটা ভাষায় মুক্তি পাবে একটা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপে। পরিচালক থেকে শুরু করে ক্যামেরা ম্যান সবাই বাংলাদেশের। ভারতে দুজন শিল্পী সকালে সেটে আসলো একদিনের একটা প্যাচ ওর্য়াক ছিলো। পেমেন্টের কোন ব্যাপার নেই। তাই ভ্রমন ভিসায় এসেছে। সকালে একই লোকেশনে একটা সংগঠনের মাননীয় নেতা ছিলেন। তিনি বললেন, ওদের ওর্য়াক পারমিট না থাকলে কাজ করো না। আমি কাজ করলাম না। ওরা চলে গেলো। আমরা বাংলাদেশীদের দিয়ে বাকি কাজ করলাম।’’

অনন্য মামুন আরও লিখেন, পরে ঘটনা একটা গল্প। একের পর এক ফোন। কেউ একজন সব সাংবাদিকদের ফোন করে ব্যাপারটা জানানো হলো সুটিং বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।  যা মিথ্যা। আমার কথা হলো উনি কি আমাকে আইন মেনে কাজ করতে বললেন নাকি নিজে শিরোনাম হলেন? কথা বললেই দোষ হবে। কিন্তু আজ না বলে পারছি না। নিউজটা আমাদের কি উপকারে আসলো আমি জানি না। কিন্তু ক্ষতি কি হলো সেটা জানি কোন বড় ভারতের শিল্পীর সাথে কাজ করছি। সেটা দেখলেই বড় নিউজ। কিন্তু সেই সংগীত পরিচালকের কি ভারতের ওর্য়াক পারমিট আছে?

কোলকাতা এয়ারপোর্টে এখন কোন বাংলাদেশি মিডিয়ার লোককে ট্যুরিস্ট ভিসা দেখলে অনেক প্রশ্ন করেন। আগে করতো না এখন কেন করেন যারা এটার সম্মুখীন হয়েছেন তারা জানেন। আমার প্রশ্ন আমরা কি আইন মেনে কাজ করার পক্ষে, নাকি নিউজের শিরোনাম হতে চাই। যদি আইন মেনে কাজ করতে চাই তাহলে সামান্য বিষয়কে কেন নিউজ বানিয়ে নিজেদের জায়গা গুলোকে নষ্ট করি।

বাংলা/আরএইচ

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1843 seconds.