• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৩ মে ২০১৮ ২১:৪৪
  • ২৩ মে ২০১৮ ২১:৪৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

পটল চিরে পাওয়া গেল ৫৫ হাজার ইউরো!

ছবি: সংগৃহীত

থরে থরে সাজানো পটল। আঙুল দিয়ে চাপতেই ফেটে যেতে থাকে পটলগুলো। ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে ইউরো। সব মিলিয়ে ৫৫ হাজার ইউরো! গত সোমবার রাতে কলকাতার নেতাজি সুভাষচন্দ্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুইজন যাত্রীর দুই ব্যাগ তল্লাশি চালিয়ে ওই ইউরোগুলো উদ্ধার করা হয়।

ভারতের শুল্ক দপ্তর সূত্রে জানা যায়, বড় বড় পটল চিরে, তার ভেতরে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল সরু করে মোড়া ৫০০ ইউরোর নোট। এর পরে চেরা অংশ আঠা দিয়ে লাগিয়ে দেওয়া হয়। বাইরে থেকে বোঝার কোনও উপায় ছিল না যে ভেতরে নোট রয়েছে।

আনন্দবাজারের খবরে শুল্ক অফিসাররা জানিয়েছেন, গ্রেপ্তার হওয়া দুই যাত্রীর বাড়ি বিহারে। এখন তাদের একজন থাকেন থাকেন খড়দহে। অন্য জন উত্তরপ্রদেশের রুদ্রপুরে। সোমবার রাতে উড়োজাহাজে করে ব্যাঙ্কক যাবেন বলে তারা কলকাতার নেতাজি সুভাষচন্দ্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌছন। দু’জনের কাছে একই রকম দেখতে কালো রঙের দু’টি ব্যাগ ছিল। ছিল একটি করে হাত ব্যাগও।

এক একটি কালো ব্যাগে কমপক্ষে ১০ কিলোগ্রাম করে পটল ছিল। সেগুলো বিমানের পেটের ভেতরে পাঠিয়ে দেন ওই দুই যুবক। তার পরে হাত ব্যাগ নিয়ে তারা অভিবাসন পেরিয়ে শুল্ক অফিসারদের কাছে পৌঁছান। তাদের গতিবিধি দেখে সন্দেহ হয় অফিসারদের। পাসপোর্ট পরীক্ষা করে দেখা যায়, মাঝেমধ্যেই ওই দু’জন ব্যাঙ্কক যান।

সন্দেহ বাড়তে থাকায় কালো ব্যাগ দু’টি বিমানের পেট থেকে ফিরিয়ে আনা হয়। ব্যাগ খুলে দেখা যায়, থরে থরে সাজানো পটল। আঙুল দিয়ে চাপতেই ফেটে যেতে থাকে পটলগুলো। ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে ইউরো। সব মিলিয়ে ১১০টি ৫০০ ইউরোর নোট ছিল পটলের ভেতরে।

দু’জনের ট্রাউজার্সের পকেট থেকে পাওয়া গিয়েছে পাঁচ হাজার মার্কিন ডলার। সব মিলিয়ে বাজেয়াপ্ত হওয়া মুদ্রার মূল্য ভারতীয় রুপিতে ৪৬ লক্ষ ৭১ হাজার ৫০০ বলে জানায় শুল্ক দপ্তর।

বাংলা/আরএইচ

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1699 seconds.