• বিদেশ ডেস্ক
  • ২১ মে ২০১৮ ১২:৪৮:১৫
  • ২১ মে ২০১৮ ১৭:৪০:০৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

মায়ের মরদেহ ফ্রিজে রেখে পেনশন তুলতেন ছেলে!

ছবি : সংগৃহীত

মায়ের মরদেহ ফ্রিজে রেখে নিয়মিত পেনশন তুলতেন শুভব্রত মজুমদার। সেই টাকা তিনি গবেষণার কাজে লাগাতেন বলে জানান। শুভব্রত মজুমদার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রাজধানী কলকাতার জেমস লং সরণির বাসিন্দা।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, এ ঘটনা জানাজানির পর তদন্তকারীরা জানার চেষ্টা করেছিলেন, কেন এবং কীভাবে মায়ের পেনশনের টাকা তুলতেন শুভব্রত। তখন এ প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।

এ অবস্থায় আদালতের নির্দেশে পাভলভ মানসিক হাসপাতালে পাঠানো জয় শুভব্রতকে। সেখানে চিকিৎসকদের কাছে সত্য তুলে ধরেন তিনি।

হাসপাতালের সুপার গণেশ প্রসাদ জানান, প্রথম দিকে কথা বলতেন না শুভব্রত। নিজেকে আলাদা রাখতেন সবার কাছ থেকে। কোনো প্রশ্ন করলে পাল্টা প্রশ্ন করে বিষয়টি এড়িয়ে যেতেন।

তবে কয়েক দিন পর থেকেই তিনি গল্প করার লোক খুঁজতেন। সেই সুযোগই কাজে লাগান চিকিৎসক এবং তার জন্য তৈরি মেডিকেল বোর্ডের সদস্যেরা।

মেডিকেল বোর্ডের এক সদস্য জানান, শুভব্রত বলেছেন ফ্রিজে মাকে রাখার ঘটনা জানাজানি হওয়ায় তার দীর্ঘদিনের গবেষণার অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেছে।

মূল বিষয়টি কেউ বোঝার চেষ্টা করল না বলেও তিনি আক্ষেপ করেছেন। বিদেশের একাধিক জায়গায় কীভাবে এবং কী পদ্ধতিতে গবেষণা চলছে, সেসব নিয়ে গল্প করেন তিনি।

এ পর্যায়ে শুভব্রত জানান, তিনি কোনো অসৎ উদ্দেশে টাকা তুলেননি। গবেষণার প্রয়োজনীয় বই, সরঞ্জাম কেনার পাশাপাশি মায়ের মৃত্যুর ঘটনা গোপন রাখতেই তিনি পেনশনের টাকা তুলেছেন।

তবে কীভাবে তিনি ওই টাকা তুলেছেন, তা জানাননি শুভব্রত। সে বিষয়ে কেউ তাকে সাহায্য করেছেন কিনা, সে বিষয়েও তিনি চুপ রয়েছেন।

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1706 seconds.