• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৮ মার্চ ২০১৮ ১৪:৫১:০৮
  • ১৮ মার্চ ২০১৮ ১৫:২৯:৫০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রাঙ্গামাটিতে মুখোশ বাহিনীর সশস্ত্র হামলা, ২ নেত্রী অপহৃত

দয়াসোনা চাকমা ও মন্টি চাকমা। ছবি : সংগৃহীত

একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী হামলা চালিয়ে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) দুই নারী নেত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। এসময় এক সংগঠক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সন্ত্রাসীরা সংগঠনের মেস ঘর হিসেবে পরিচিত বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়।

রোববার সকাল ৯টার দিকে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কের পাশে অবস্থিত কতুকছড়ি আবাসিক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় হামলার শিকার নেতা কর্মীরা সংগঠনের মেস ঘরে খাওয়া দাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

অপহৃতরা হলেন- ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠন হিল উইমেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দয়াসোনা চাকমা।

অপরদিকে হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক ধর্মসিং চাকমা। তিনি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আরেক সহযোগী রাঙামাটি জেলা শাখার পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি কুনেন্দু চাকমাকে নিয়ে পালাতে সক্ষম হন।

হিল উইমেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভানেত্রী নিরুপা চাকমা বাংলা রির্পোটকে বলেন, ‘হামলাকারীদের স্থানীয়রা নব্য মুখোশবাহিনী হিসেবে চেনে। এরা সবাই প্রশাসনের ছত্রছায়ায় চলে। এরাই এই হামলা চালিয়ে অপহরণ করেছে।’

তিনি আরো জানান, হামলাকারীরা যে জিপ গাড়িতে করে এসেছিলো তা নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যবহৃত জিপ গাড়ি।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানায়, অপহরণের সময় মন্টি চাকমা ও দয়া সোনা চাকমাকে সন্ত্রাসীরা নির্মমভাবে পিটিয়ে আহত করে।

কুনেন্দু চাকমা বলেন, ‘আমরা চারজন কর্মী বাসায় খাওয়া দাওয়া করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় হঠাৎ করে আমাদের ওপর হামলা চালায় ৮ থেকে ১০ জন অস্ত্রধারী। আমি ও ধর্মসিংহ পালিয়ে যেতে সক্ষম হই। ধর্মসিংয়ের পায়ে গুলি লাগে। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।’

এ ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষনিকভাবে ইউপিডিএফের কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে। অন্যদিকে ঢাকায় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি ডাক দিয়েছে হিল উইমেন ফেডারেশন।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1614 seconds.