• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৪ মার্চ ২০১৮ ১৬:৪৫:৪৭
  • ১৪ মার্চ ২০১৮ ১৭:৩৮:০০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

দায়িত্ব পেয়েই এ্যাকশনে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব

ছবি: সংগৃহীত

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পরও সাধারণ মানুষের আশা-আকাঙ্খা আর চাহিদা পূরণের কথা একদমই ভোলেননি ত্রিপুরার নতুন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। সাধারণ মানুষের হয়ে কাজ করাই যে তার মুখ্য দায়িত্ব, এই শিক্ষা থেকে দূরে সরে যাননি নতুন এ মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি খুব ভাল করেই জানেন, বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা অটুট ছিল।

তাই দায়িত্ব হাতে নিয়ে শুরুতেই চাহিদা মেনে দুই সাংবাদিক হত্যায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। প্রয়োজনীয় আইনি দিক খতিয়ে দেখার কথাও জানিয়েছেন। কর্মচারীদের বেতন বাড়ানোরও পরিকল্পনা নিয়েছেন। তবে সেখানেই শেষ নয়। আরও বৈপ্লবিক পদক্ষেপের দিকে হাঁটলেন মুখ্যমন্ত্রী।

উত্তর ত্রিপুরায় বেশ কয়েকটি অঞ্চলে সারপ্রাইজ ভিজিটে গিয়েই চমকে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কোথায় কী কাজ হচ্ছে তা খতিয়ে দেখছিলেন। আর তখনই বুঝতে পারেন রাজ্যে কেবল কেন্দ্রীয় বরাদ্দই এসেছে, কোথাও কোনও কাজ হয়নি। এমনকি রাস্তা সারানোর কাজও হয়নি। এরপরই প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ বিপ্লব দেব তিন প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নেন।

একদল দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকলে প্রশাসনে যে শ্যাওলা জমে, এখানেও তাই হয়েছিল বলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। এছাড়া বিভিন্ন ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজাতি সম্প্রদায়ের মানুষের সঙ্গে বামদের দূরত্ব বেড়েছিল বলেও মনে করা হচ্ছে। আর সেই ক্ষোভই চালিত হয়েছে ভোটবাক্সে। সুতরাং এখন মানুষের ক্ষোভ মেটানো ও চাহিদা পূরণই যে তার আশু কর্তব্য তা ভালই জানেন বিপ্লব দেব।

বাংলা/এমআর

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1747 seconds.