• বাংলা ডেস্ক
  • ১২ মার্চ ২০১৮ ২২:২৩:৪৯
  • ১২ মার্চ ২০১৮ ২২:২৩:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

ইউএস বাংলার প্রথম নারী পাইলট নিহত

প্রিথুলা রশিদ। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা থেকে নেপালের ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলা বিমানটি বিধ্বস্তের ঘটনায় ইউএস বাংলার প্রথম নারী পাইলট প্রিথুলা রশিদ নিহত হয়েছেন। তিনি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রিথুলা শেষ একটি পোস্টে লিখেছিলেন, ‘খোদা হাফেজ’। ইথিওপিয়া বিমানবন্দরে থেকে গত ১৮ জানুয়ারি দেয়া ওই স্ট্যাটাসের পর তিনি আর কোনো স্ট্যাটাস দেননি ফেসবুকে। তবে তিনি গত ৩ ফেব্রুয়ারিতে তার প্রিয় বিড়ালটিকে কোলে নিয়ে শুধুই ছবি পোস্ট করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শোকের ছায়া। এদিকে প্রিথুলার মৃত্যুতে ফেসবুকে তার বন্ধুরা গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমানটিতে থাকা ৬৭ যাত্রীর মধ্যে নিহত হয়েছেন অন্তত ৫০ জন এমনটাই জানিয়েছে নেপালের সেনাবাহিনী। ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে ৭৮ আসনের বিমানটিতে ৬৭ জন যাত্রী এবং ৪ জন ক্রু মেম্বার ছিলেন। ত্রিভুবন বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এদের মধ্যে ৩৭ জন পুরুষ, ২৭ জন নারীর সঙ্গে ছিল দুই শিশু।

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন এয়ারপোর্টে এখন পর্যন্ত ৭০টিরও বেশি দুর্ঘটনা ঘটেছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, এসব দুর্ঘটনায় ৬৫০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। বিমানের পাশাপাশি সেখানে হেলিকপ্টারও বিধ্বস্ত হয়েছে।

বাংলা/আরএইচ

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1730 seconds.