• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ১২ মার্চ ২০১৮ ১৯:৫৬:০১
  • ১৩ মার্চ ২০১৮ ১৩:০৬:৪১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

ফাইনালে খেলার স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ

ফাইল ছবি

নিদাহাস ট্রফিতে অন্য দুই দলের সঙ্গে তুলনা করে নিজেদের পিছিয়ে রাখলেও প্রত্যাশার পারদ কিন্তু উঁচুতেই। তবে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে ছয় তারকা ক্রিকেটারহীন ভারতের কাছে প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীনভাবে হেরে যাওয়ায় শঙ্কা বাড়ছিল। তবে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইতিহাসগড়া জয়ে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। স্বাগতিক শ্রীলংকাকে তাদের মাটিতে রেকর্ড সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয় তুলে নিয়েছেন টাইগাররা। এই একটি জয়ই বদলে দিচ্ছে হিসাব-নিকাশ।

শ্রীলংকায় নিদাহাস ট্রফি খেলতে যাওয়ার আগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশ জানিয়েছিলেন, এ টুর্নামেন্টের ফাইনালে খেলার সুযোগ দেখছেন বাংলাদেশের। গত ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের পর ওয়ালশের ওই বক্তব্যে জোর দিয়ে বলাই যায়, এখন ফাইনালে খেলার স্বপ্ন দেখতেই পারে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের মতো একটি করে জয় পেয়েছে শ্রীলংকা ও ভারত। তিন দলের ফাইনালে ওঠার সমান সুযোগ রয়েছে। দুটি করে ম্যাচ খেলে তিন দলেরই অর্জন সমান দুই পয়েন্ট করে। তিনটি দলেরই একটি করে ম্যাচ বাকি রয়েছে। আজ আবারও শ্রীলংকা ও ভারত পরস্পরের মুখোমুখি হবে। একদিন পর অর্থাৎ ১৪ মার্চ বাংলাদেশ খেলবে ভারতের বিপক্ষে। ১৬ মার্চ আবারও বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে শ্রীলংকা। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দুই দল খেলবে ফাইনাল। ১৮ মার্চ কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামেই ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। বাকি দুই ম্যাচে বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাসের জ্বালানি হতে পারে শ্রীলংকার বিপক্ষে দুইশর বেশি রান তাড়া করে পাওয়া দুর্দান্ত জয়টিই। 

তামিমও জানান, এ জয় বাংলাদেশের জন্য অনেক কিছু। আগে কখনো এমনটা করে দেখাতে পারেনি বাংলাদেশ। এ জয় থেকে আত্মবিশ্বাসের মাত্রা তো বাড়বেই, পাশাপাশি সম্প্রতি টানা হারের হতাশা কাটিয়ে উঠবে চাইবে দল।

টানা হারের মধ্যে থাকা বাংলাদেশের দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন। লিটন, তামিম, মুশফিকের প্রশংসায় সবাই। শ্রীলংকার বিপক্ষে হাইস্কোরিংয়ের ম্যাচে ব্যাটিংয়ে যেমন দারুণ সূচনা হয়েছে, শেষটাও হয়েছে চোখধাঁধানো।
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে বাংলাদেশের এমন পাওয়ার ব্যাটিং আগে কখনো দেখেননি ক্রিকেটপ্রেমীরা।

যদিও বোলারদের আরও ভালো করার প্রশ্নটা আসছে। কেননা ভালো ব্যাটিংয়ের সঙ্গে বিধ্বংসী বোলিংটাও জরুরি। তবে সামনের দুই ম্যাচে (ভারত ও শ্রীলংকার বিপক্ষে) বাংলাদেশ আগের ম্যাচগুলোয় করা ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে ফাইনালের দিকে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

বাংলা/আরএইচ

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1714 seconds.