• ফিচার ডেস্ক
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৭:২৮:৫৫
  • ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৮:১৫:১৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

যে শাকে বাড়ে মারাত্মক ব্রেন পাওয়ার

বহুগুণে সমৃদ্ধ ব্রাহ্মী শাক। এই শাকটির ব্যবহার হয়ে আসছে আয়ুর্বেদ চিকিৎসা শাস্ত্রের সেই জন্ম লগ্ন থেকেই। এই শাকটির গুণাগুণ সম্পর্কে একাধিক প্রচীন পুঁথি ঘেঁটে জানতে পারা যায়। ব্রেন পাওয়ার মারাত্মক বৃদ্ধি পায় এই ব্রাহ্মী শাক খেলে। সেই সাথে আরো অনেক উপকারিতা রয়েছে এই শাকটিতে। আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানও এই শাকটির গুণাগুণকে মান্যতা দিয়েছে।

তাহলে জেনে নিন ব্রাহ্মী শাকের কিছু উপকারিতা-

১. ফুসফুসের ক্ষমতার উন্নতি ঘটে:
নিয়মিত কয়েকটা করে ব্রাহ্মী শাখের পাতা মুখে নিয়ে চেবালে ধীরে ধীরে ফুসফুসের ক্ষমতা বাড়তে শুরু করে, এমন তথ্যই পাওয়া গেছে বেশ কিছু গবেষণায়। আর তাই এই প্রাকৃতিক উপাদানটি দারুন কাজে আসে ব্রঙ্কাইটিস, বুকে কফ জমা এবং সাইনাসের মতো সমস্যার সমাধানে।

২. দেহের অন্দরে প্রদাহ কমায়:
বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, শরীরের কোনও জায়গায় কেটে যাওয়ার পর ক্ষতস্থানে ব্রাহ্মী শাখ বেঁটে লাগালে জ্বাল-যন্ত্রণা একেবারে কমে যায়। এছাড়াও শরীরের অন্দরে তৈরি হওয়া ইনফ্লেমেশনও কমে যেতে শুরু করে এবং আর্থ্রাইটিসের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে, নিয়মিত এই শাক খাওয়ার ফলে।

৩। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটে:  
এই শাকটি নিয়মিত খাওয়ার ফলে, শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি-এর মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, যা রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে জোরদার করে তুলতে সাহায্য করে। নিয়মিত এই শাকটি খাওয়ার ফলে  ইমিউনিটি বেড়ে যায়। তাই সংক্রমণ ধারে কাছে ঘেঁষতে পারেই না।

৪। বুদ্ধি এবং স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়:
ব্রাহ্মী শাকে উপস্থিত বেশ কিছু কার্যকরি উপাদান ব্রেনের হিপোকম্পাস অংশটির ক্ষমতা এতটা বেড়ে যায় যে বুদ্ধি এবং স্মৃতিশক্তি চোখে পারার মতো বাড়তে শুরু করে, এমনটাই পাওয়া গেছে বেশ কিছু গবেষণায়। এই শাকটি বিশেষ ভূমিকা নেয় মনোযোগ বাড়াতে।

৫। ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে:
ব্রাহ্মী শাকে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা শরীর থেকে নানাবিধ ক্ষতিকর উপাদানদের বার করে দিয়ে একদিকে যেমন ক্যান্সার সেলের জন্ম আটকায়, তেমনি সার্বিকভাবে শরীরের কর্মক্ষমতা বাড়াতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়। তাই সুস্থ থাকতে নিয়মিত ব্রাহ্মী শাক খান। 

৬। রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখে: 
ব্রাহ্মী শাক রক্তচাপকে স্বাভাবিক রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে এবং ব্লাড প্রেসার হঠাৎ বেড়ে যাওয়ার কারণে যাতে কোনও ধরনের ক্ষতি না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখে। তাই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আজ থেকেই ব্রাহ্মী শাক খাওয়া শুরু করুন।

৭। অ্যালঝাইমার রোগকে দূর রাখে: 
ব্রাহ্মী শাকে রয়েছে ব্যাকোসাইড নামক এক ধরনের বায়ো-কেমিকাল। যা ব্রেন টিস্যুর ক্ষত সারিয়ে তাদের ক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই নিয়মিত ব্রাহ্মী শাক খেলে বয়সের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ব্রেন পাওয়ার কমে যাওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায় এবং কগনিটিভ ফাংশন কমে যাওয়ার সম্ভাবনাও কমে।

৮।  স্ট্রেস এবং অ্যাংজাইটির মাত্রা কমায়:
মস্তিষ্কের অন্দরে স্ট্রেস এবং অ্যাংজাইটির জন্ম দেওয়া কর্টিজল হরমোনের ক্ষরণ কমতে শুরু করে নিয়মিত ব্রাহ্মী শাক খেলে। ফলে মানসিক চাপ  কমে, সেই সাথে মনের হারিয়ে যাওয়া অনন্দও ফিরে আসে। তাই নিজেকে ভালো রাখতে নিয়মিত ব্রাহ্মী শাক খান।

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1697 seconds.