• ফিচার ডেস্ক
  • ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৯:৪৫:০৬
  • ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৯:৪৫:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

ব্রাশ করার সময় যে বিষয়গুলো লক্ষ রাখবেন

সকালে ঘুম থেকে উঠেই আগে আমরা ব্রাশ করি। দাঁত ভালো রাখতে নিয়মিত ব্রাশ করা দরকার। দাঁতকে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে ভালোকরে ব্রাশ করা প্রয়োজন। নিয়মিত ব্রাশ করলে মুখে দুর্গন্ধ দূর হয়। কিন্তু আমরা অনেকেই ব্রাশ করার সঠিক নিয়ম জানিনা। আর এতে করে আমাদের দাঁত দুর্বল হয়ে পড়ে।

তাই জেনে নিন ব্রাশ করবার সঠিক নিয়ম-

১। ব্রাশের ব্রিসল ৪৫ ডিগ্রি করে ঘুরিয়ে ব্রাশ করা উচিত সব সময়। কিন্তু আমরা অনেকেই এই নিয়ম মেনে ব্রাশ করি না। 

২। অনেকেই আমরা এক থেকে দেড় মিনিট ব্রাশ করে তাড়াহুড়ো করে চলে যাই। কিন্তু চিকিৎসকদের মতে ব্রাশ সবসময় ২ থেকে ৩ মিনিট করা উচিত।

৩। আমরা সাধারণত আয়নার দিকে ভালো করে খেয়াল করি না দাঁত ব্রাশ করবার সময়। আবার তাড়াহুড়ো করে ব্রাশ করবার সময় মাড়ি এবং জিভ পরিষ্কারের কথা ভুলে যাই অনেক সময়। কিন্তু এগুলিও মুখের গুরুত্বপূর্ণ অংশ বিধায় ব্যাটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটতে পারে মুখে। তাই জিহ্বা ও মাড়ি ভালোভাবে  পরিষ্কার করুন প্রতিবার ব্রাশ করার সময়। 

৪। অনেকেই  সবসময় খাবার পর ব্রাশ করেন। এতে করে দাঁতের উপকারের বদলে ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। প্রতিদিন দু’বেলা ব্রাশ করা উচিত। 

৫। অবশ্যই দেখে নিন ব্রাশটি নরম কি না ব্রাশ কেনার আগে। তবে নরম ব্রাশও ব্যাকটেরিয়া রোধ করতে পারে না, যদি তবে সঠিক নিয়মে ব্রাশ করা না হয়। 

৬। কখনই একই ব্রাশ দীর্ঘদিন ব্যবহার করবেন না। কারন এক ব্রাশ বেশি দিন ব্যবহার করলে তাতে জীবাণুর সংক্রমণ ঘটে। তাই একই ব্রাশ ৩ মাসের বেশি ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। 

৭। ব্রাশের পর শুকিয়ে রাখবার চেষ্টা করুন আপনার ব্রাশটাকে। এতে ব্রাশে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ হবে না। 

৮। জোরে দাঁত ব্রাশ করা থেকে বিরত থাকুন। এতে দাঁতের এনামেল ক্ষয়ে ডেনটিন বেরিয়ে আসে। আর এটি দাঁতের সমস্যা বাড়িয়ে দেয়। 

৯। আমরা অনেকেই বাজার চলতি নানা টুথপেস্ট কিনে থাকি দাঁত উজ্জ্বল করার জন্য। কিন্তু বাজারে নানা ধরনের  টুথপেস্ট আছে যা দাঁতের জন্য ক্ষতিকারক। তাই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে আপনার জন্য উপযুক্ত টুথপেস্ট  নির্বাচন করুন। 

১০। ব্রাশের পর ভালো করে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। অনেকেই তাড়াহুড়ো করে দাঁত ব্রাশের পর কোন রকমে মুখ ধুয়ে চলে যান। এতে করে মুখের ব্যাকটেরিয়া মুখেই থেকে যায়।

advertisement

সংশ্লিষ্ট বিষয়

দাঁত ব্রাশ

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1704 seconds.