• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৬:৪৭:৫১
  • ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৬:৪৭:৫১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

সৌদি প্রবাসীদের ১২ কাজে নিষেধাজ্ঞা

ছবি: সংগৃহীত

সৌদি প্রবাসীরা নতুন করে বড় ধরণের দুঃসংবাদ পেতে যাচ্ছেন। আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে সে দেশের ১২ ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে প্রবাসীরা আর কাজ করতে পারবেন না।

সম্প্রতি সৌদি শ্রম মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত নতুন আইন জারি করেছে। মূলত বেসরকারি খাতে সৌদি নাগরিকদের সুবিধা প্রধানের লক্ষ্যে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শ্রম মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র খালেদ আবালখালিল বলেন, ‘ঘড়ি, চশমা, হাসপাতাল সামগ্রী, বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ও বিদ্যুৎ–চালিত সামগ্রী, কার্পেট, গাড়ি ও মোটরসাইকেল, গাড়ির যন্ত্রাংশ, আবাসন উপকরণ, গৃহ ও অফিস আসবাব, বাচ্চাদের কাপড়, পুরুষদের আনুষঙ্গিক জিনিস, গৃহস্থলীর তৈজসপত্র ও কনফেকশনারির দোকানে প্রবাসীরা কাজ করতে পারবেন না। এ ধরনের কাজ শুধু সৌদি নাগরিকদের জন্যই সংরক্ষিত থাকবে।’

এতে করে দেশটিতে প্রবাসীদের কাজের সুযোগ সংকুচিত হয়ে যাওয়ার সমূহ আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। নতুন এ সিদ্ধান্তের ফলে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। অনেকেই দেশে ফিরে আসার কথাও ভাবছেন।

এক প্রবাসী বাংলাদেশি হতাশার স্বরে বলেন, 'এই সেক্টরগুলোতে লাখ লাখ প্রবাসী কাজ করেন। সবাই চাকরি হারাবে।'

অপর একজন বলেন, 'সৌদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে আমাদের মতো মধ্য আয়ের বাংলাদেশি প্রবাসীরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এখন বাধ্য হয়ে আমাদের দেশে ফেরত যেতে হবে।'

প্রায় তিন বছর ধরে ভঙ্গুর অর্থনীতি, বার্ষিক বাজেট ঘাটতি, ইয়েমেনের সাথে যুদ্ধসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত সৌদি আরব। আর এ অবস্থা কাটিয়ে উঠতেই নানামুখী পদক্ষেপ নিচ্ছে দেশটির সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন সেক্টরে সৌদিকরণের অংশ হিসেবে বিদেশি শ্রমিকদের কাজের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

বিদেশি শ্রমিকদের আকামা নবায়ন ফি বাড়ানো, ফ্যামিলি ফিসহ বিভিন্ন ট্যাক্স যুক্ত করায় হতাশা ও আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন তারা। এ অবস্থায় সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকরা পুনর্বাসনের ব্যাপারে দ্রুত বাংলাদেশ সরকারের সহায়তা চেয়েছেন।

বাংলা/এমআর/এমএইচ

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0204 seconds.