• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭ ২২:১৬:০২
  • ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭ ২২:১৬:০২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শিক্ষার্থীর প্রেমে ছুটে আসা সেই বিদেশিনী ফিরে যাচ্ছেন

ইমরান হোসেন ও নিকি উল ফিয়া। ছবি: সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রথম কথা হয়। এরপর নিজেদের মধ্যে পরিচয়, সেখান থেকে বন্ধুত্ব। পরে বন্ধুত্ব গড়ায় প্রেমে। সেই প্রেমের টানেই ইন্দোনেশিয়ার শিক্ষিকা নিকি উল ফিয়া চলে এসেছিলেন পটুয়াখালীর বাউফুলে। তবে প্রেমের টানে দূর দেশ থেকে এলেও এক হতে পারছেন না এই প্রেমিক জুটি। প্রেমিককে রেখেই নিজ দেশে চলে যাচ্ছেন এই বিদেশিনী। কারণ যার প্রেমে পরে তিনি এই বাংলাদেশে এসেছিলেন সেই প্রেমিক মো. ইমরান হোসেনের (১৯) বিয়ের বয়স এখনো হয়নি।

জানা গেছে, তরুণীর প্রেমিক ইমরানের ২১ বছর না হওয়ায় আইনি জটিলতা দেখা দেয়। এমন পরিস্থিতিতে স্বদেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তবে ইমরানের বিয়ের বয়স না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন নিকি উল ফিয়া।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ইন্দোনেশিয়ার সুরা বায়া বিভাগের জাওয়া গ্রামের নিকি উল ফিয়া (২৪) একটি বেসরকারি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। তার বাবা মি. ইউ লি আন থো একজন চাকরিজীবী। আর ইমরান (১৯) পটুয়াখালী সরকারি কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

নিকি উল ফিয়ার জানান, ইমরানের প্রতি গভীর ভালোবাসার টানে বাংলাদেশে এসেছেন তিনি। ইমরানকে বিয়েও করতে চান তিনি। বিষয়টি তার মা-বাবাকে জানিয়েই এসেছেন।  

মো. ইমরান হোসেন বলেন, ‘প্রায় এক বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে ইন্দোনেশিয়ান মুসলিম পরিবারের সন্তান নিকি উল ফিয়ার সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। পরিচয়ের মাধ্যমে বন্ধুত্বের একপর্যায়ে তাঁর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নিকি উল আমার দেশ ও সংস্কৃতি সম্পর্কে আমার কাছ থেকে জানে। আমার পরিবার সম্পর্কে সব কিছু জেনে আমার সঙ্গে সম্পর্কের বাস্তব রূপ দিতে চায়।’

গত ১ ডিসেম্বর সুদূর ইন্দোনেশিয়া থেকে ঢাকা চলে আসেন নিকি উল ফিয়া। সেখান থেকে ৩ ডিসেম্বর প্রেমিক ইমরানের পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার দাশপাড়া গ্রামের বাড়িতে যান তিনি।

এদিকে স্থানীয়রা জানায়, প্রেমিকের বাড়িতে আসার পর নিকি যখন জানলেন, আইন অনুযায়ী প্রেমিক ইমরানের বিয়ের বয়স ২১ হয়নি। তখন তিনি হতাশ হয়ে পড়ে। তার হাস্যোজ্জ্বল মুখ মলিন হয়ে যায়। নিরবে চোখের পানিও ফেলেছেন তিনি। পরে স্বদেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন নিকি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নিকি উল ফিয়া বলেন, ইমরানের বিয়ের বয়স না হওয়ার খবরটি জানার পর আমি ব্যথিত হই। ২-১ দিনের মধ্যে আমার দেশে চলে যাব। বিমানের টিকিটের জন্য ট্রাভেল এজেন্সির সঙ্গে কথা হয়েছে। তবে ইমরান ও তার পরিবারের সদস্যদের ব্যবহারে আমি মুগ্ধ। ইমরানের বিয়ের বয়স না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করব আমি। তার বিয়ের বয়স পূর্ণ হলে তখনই বিয়ে করব আমরা।

এর আগে প্রেমের টানে বাংলাদেশে ছুটে আসা মার্কিন তরুণী মেনডি কুসার (৩৯) দেশে ফিরে যান। নারায়ণগঞ্জের তরুণ ফারহান আরমানকে (৩০) বিয়েও করেন তিনি। ভালোবাসার মানুষটিকে বিয়ে করে ৭-৮ মাস সংসার করলেও পারিবারিক কলহের জেরে স্বামীর ঘর ছেড়ে দেশের মাটিতে চলে যেতে বাধ্য হন তিনি।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1617 seconds.