• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৯ নভেম্বর ২০১৭ ১২:৩৪:১৮
  • ২৯ নভেম্বর ২০১৭ ১২:৩৪:১৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

নিজের স্তনের দুধ পান করে বেঁচে যাওয়া নারী!

ছবি : সংগৃহীত

বনাঞ্চলের ভিতর দিয়ে ছুটতে হবে ২০ কিলোমিটার পথ। দুবছর আগে অনুষ্ঠিত ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন ২৯ বছরের সুজান ও ব্রায়েন। কিন্তু তার পরিণতি যে এত ভয়ঙ্কর হবে ভাবতে পারেননি দুই সন্তানের মা সুজান। বনের ভিতর পরিত্যক্ত অবস্থায় তাঁকে কার্যত মৃত্যুমুখ থেকে ফিরিয়ে এনেছিল তাঁর নিজের স্তনের দুধ।  

কলকাতা ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বাংলালাইভের একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটনের দক্ষিণে জঙ্গুলে পথ ধরে ছুটতে ছুটতে পথ হারিয়ে ফেলেন সুজান। যখন বুঝতে পারেন, তখন আর ফিরে আসার উপায় নেই। বনের ভিতর রাত কাটাতে সুজান গর্ত খুঁড়লেন। তার ভিতর ঢুকে ধুলোবালির আস্তরণে ঢেকে ফেললেন নিজেকে, যাতে বন্য পশুর আক্রমণ থেকে বাঁচতে পারেন।   

ওই গর্তের ভিতর অবস্থানের সময় ভীষণ ভয় ও দুশ্চিন্তায় পড়েন সুজান। একেই দীর্ঘক্ষণ দৌঁড়ে অবসন্ন হয়ে এসেছিলেন তিনি। তাঁর মনে হচ্ছিল, আর বোধহয় দেখতে পাবেন না স্বামী-সন্তানদের মুখ। কখন উদ্ধার পাবেন, জানেন না। ক্ষুধা-তৃষ্ণায় কাতর সুজান শেষে স্থির করলেন পান করবেন নিজের স্তনের দুধ।   

সুজান জানান, তিনি চেয়েছিলেন ক্ষুধা ও তৃষ্ণা মেটাতে। একইসঙ্গে কিছুটা শক্তি পেতে। বেঁচে থাকার জন্য তাঁর সামনে নিজের স্তনের দুধ পান করা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। এ ভাবেই বৃষ্টি আর ঝড়ের মধ্যে প্রার্থনা করে রাত কাটান সুজান। তার মাঝে যখনই কোনো শব্দ শুনছিলেন‚ প্রাণপণে সব শক্তি জড়ো করে চিৎকার করছিলেন। 

ওই নারী সংবাদ মাধ্যমকে জানান, অবশেষে তাঁর অপেক্ষার অবসান হয়। আবহাওয়ায় তাপমাত্রা সেন্সর করার কাজে নিযুক্ত একটি হেলিকপ্টার চিহ্নিত করে তাঁকে। উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। প্রাথমিকভারে পরীক্ষা করে ছেড়ে দেওয়া হয়। 

নতুন জীবন পেয়ে স্বামী ড্যানিয়েল, দুই বছরের ছেলে জেডেন ও আট মাসের মেয়ে মেইশার কাছে ফিরতে পেরে ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন সুজান।  

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1594 seconds.