• ০৫ নভেম্বর ২০১৭ ০৪:৪৭:১৫
  • ০৫ নভেম্বর ২০১৭ ০৪:৪৭:১৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কবিতা হতে হতেই কবিতা হারিয়ে যায়: একের ভেতর দুই

ছবি: সংগৃহীত

কবিতাহীন এই দশকে এক মলাটের ভেতর দুটো কাব্যগ্রন্থ। একটির নাম চাই পাপ, চাই প্রায়শ্চিত্ত; অপরটি অন্ধকাট রৌদ্রদুপুর। এবং দিয়ে কাব্য গ্রন্থ দুটো যুক্ত। মোট কবিতা ৫১ টি। সাল তারিখ থাকায় জানা গেল ৯৭ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে লেখা। ময়মনসিং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবি ছাত্র এনামূল কবীর ছাত্র পড়ান ধরলা পাড়ে আর থাকেন ব্রহ্মপুত্র-তিস্তার সংগমস্থল চিলমারীতে।

বাংলা কবিতার ফর্ম দশকে দশকে পাল্টে গেছে তা কেউ হলফ করে বলতে পারবে না। কিন্তু স্রষ্টা হিসেবে একজন কবি দমে দমে চান নতুন সৃষ্টির স্রষ্টা হতে। কারণ স্বতন্ত্র কাব্যভাষা না থাকলে কবির পদতলে থাকবে ব্যর্থতার আবর্জনা। আর বর্তমান চলে গেলে পরে সময়ের ছাঁকুনিতে তিনি স্পষ্ট থেকে স্পষ্টতর হতে থাকেন। তাই ছাইপাশ লিখেও অকবিরাও ভবিষ্যতের দিকে চেয়ে থাকেন। তাই বলে বর্তমান কি একেবারে অবিচারক, অবিবেচক? আমাদের যুগের অকবিরা মূর্খতায় আচ্ছন্ন থেকে আত্মপ্রেমে না অতীতের না বর্তমানের কারও লেখাই পাঠ করেন না। ফলে না জানেন শব্দের সৌন্দর্য না বাক্যের। আমরা তাই চেষ্টা দেখি চেষ্টার মার খাওয়া দেখি। এ এক আত্মঘাতি কাল। কবি এনামূল কবীরও এই আত্মবিনাশী কালেরই সন্তান। সকল লোকের মাঝে বসেও নিজ গুণে কি আলাদা হতে পেরেছে?

‌‌‘‘নদীর শিয়রে পর্বত/ পর্বত শীর্ষে তুমি/ আমি আছি/ সুদূর ভাটিতে-/ মোহনা ছেড়েও অনেক দূরে/ সাগরতলে/ হাঙ্গরের সঙ্গে বসবাস আমার-/ উদরসাৎ হতে পারি যে কোন মুহূর্তে তাহাট।" ব্যবধান, চাই পাপ, চাই প্রায়শ্চিত্ত। কিংবা তাঁর 'পিতা' কবিতাটি: "যীশুর মতো বেড়ে উঠেছিলো যে শিশুটি/ তাকে এক হাত দেখে নিতে চেয়েছিলো/ জ্ঞাতি শত্রুরা/ সমস্ত গুণেট মতো 'ক্ষমাই মানবের পরম ধর্ম'/ পেয়েছিলো সে ঈশ্বরের কাছে।/ ক্রশবিদ্ধ না হলেও দুঃসহ যন্ত্রণায়/ আজন্ম বিদ্ধ ছিলো সে/ তবু সাবলিল ভঙ্গিমায় পদাঙ্ক এঁকেছিলো/ সাফল্য-সোপানে/ সু-নৈপুণ্যে/ স্বপ্নীল আদলে ফুটিয়েছিলো ফুল/ কঠিন পাথরে/ আপন ভঙ্গিমায়।’’ ঐ।

কবিতা দুটি পাঠ করলে কবিতা ও সাধারণ বয়ানের ভেদ করা যায় না। অতিরিক্ত বিশেষণ ও পরিমিতিবোধের অভাব রহস্যের জটগুলো আর রাখে না। কবিতা হওয়ার জন্য যে রহস্যময়তা, প্গীকায়িত আড়াল তা আর পাই না, সাধারণ পত্র বা বন্দনা বলে মনে হয়। পত্র সাহিত্যই কি তবে চলতি সময়ের কবিতার নিয়তি! অথচ বিনয় মজুমদারের 'ফিরে এসো চাকা' কোনো এক চক্রবর্তীর উদ্দেশ্যেই লেখা, কিন্তু একেকটি সোনার হরফে লেখা কবিতা। কিংবা আল মাহমুদের ‘সোনালী কাবিন’ কিংবা সৈয়দ শামসুল হকের ‘পরাণের গহীন ভেতর’ কারও একজনের উদ্দেশ্যে লেখা হলেও মণি মুক্তায় ভরা একেকটায় ভাস্কর্য।

কোথাও আঘাত ছাড়া -তবু আঘাত ছাড়া অগ্রসর সূর্যালোক নেই, আশা রাখি কবি এনামূল কবীর আঘাতে বেদনায় উত্তীর্ণ কবিতা আগামিতে উপহার দিবেন। পথ চেয়ে রইলাম।

কাব্য গ্রন্থটির আকর্ষণীয় প্রচ্ছদ এঁকেছেন মুহাম্মদ ইউছুফ। মূল্য: ১৮০ টাকা। প্রকাশক: নবধারা প্রকাশন, ৩৮/৪ বাংলাবাজার, ঢাকা -১১০০।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

কবিতা এনামূল কবীর

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0269 seconds.