• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৮ অক্টোবর ২০১৭ ২২:৪৪:২১
  • ১৯ অক্টোবর ২০১৭ ০০:৫৮:৫১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
advertisement

আসছে নতুন নীতিমালা

১৫ লাখ টাকা পাবে নিহত পুলিশের পরিবার

ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি খসড়ায় নীতিমালায় বলা হয়েছে, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় কর্মরত পুলিশ সদস্য হামলা-সংঘর্ষ বা দুর্ঘটনায় নিহত হলে পরিবার ১৫ লাখ টাকা পাবে। আর আহত হলে দেয়া হবে নগদ এককালীন একলাখ টাকা। এছাড়া পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কেউ চাকরিরত অবস্থায় মারা গেলে বা গুরুতর আহত হলে অনুদানের পরিমাণও বাড়ছে।

জানা গেছে, খসড়ায় নীতিমালায় বলা হয়েছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সরাসরি নিয়োজিত অবস্থায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে নিহত হলে এককালীন ১৫ লাখ টাকা পাবেন। ইতিপূর্বে এই ক্ষেত্রে ৫ লাখ টাকা দেয়া হতো। একই ক্ষেত্রে আহত হলে নগদ এককালীন একলাখ টাকা দেয়া হবে। এ অনুদান শুধু পুলিশ সদস্যদের জন্য প্রযোজ্য হবে।

একই ভাবে চাকরিরত অবস্থায় কেউ মারা গেলে এককালীন ৮ লাখ টাকা এবং গুরুতর আহত হয়ে স্থায়ী অক্ষম হলে এককালীন ৪ লাখ টাকা এবং দাফন কাফনের ক্ষেত্রে একাকালীন ৩০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হবে। এই অনুদান বাংলাদেশ পুলিশের পুলিশ নন পুলিশ সব কর্মকর্তা কর্মচারিরা পাবেন। নতুন এ নীতিমালা অনুমোদনের পর থেকে কার্যকর হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, গত বছর ২৭ জুন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে একটি সরকারি আদেশ জারি করা হয়েছে। ওই আদেশে বলা হয়, বেসামরিক প্রশাসনে কর্মরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে কর্মকর্তারা ৮ লাখ টাকা পাবেন। একই ক্ষেত্রে কর্মচারীরা পাবেন ৪ লাখ টাকা। চাকরিরত অবস্থায় মারা গেলে দাফন বাবদ দেয়া হবে ৩০ হাজার টাকা।

কিন্তু উল্লিখিত পরিস্থিতিতে পুলিশ সদস্যদের ক্ষেত্রে কী হবে তা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা আদেশে কিছুই বলা নেই। ফলে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা সরকারি এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সেই কারণে নতুন করে পুলিশ সদস্যদের উল্লিখিত খাতের অনুদানের আওতায় আনতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নতুন করে নীতিমালা প্রণয়ন করছে। এর ফলে নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবার আর্থিকভাবে লাভবান হবেন।

অপরদিকে আহত পুলিশ সদস্যরা সুচিকিৎসা পাবে। আপদকালীন পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতা দূর হবে। একই সঙ্গে সরকারি দায়িত্ব পালনে তারা নতুন করে উৎসাহ পাবে। এমন মন্তব্য সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তার মন্তব্য। নীতিমালাটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যাচাই বাচাই করছে বলে জানা গেছে।

advertisement

আপনার মন্তব্য

advertisement
Page rendered in: 0.1696 seconds.