ছবি: সংগৃহীত

ভারতের গোয়ায় সানভরদেম এলাকার জুয়ারি নদীর ওপর পর্তুগিজ আমলে নির্মিত একটি সেতু ধসে পড়েছে। এ ঘটনায় পানিতে ডুবে অন্তত ১০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার ওই দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৩০ জন নিখোঁঁজ রয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সেতু থেকে লাফ দিয়ে সন্তোষ ভান্ডার নামের একজন আত্মহত্যা করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সেতুর নিচে তার ভাসমান লাশ উদ্ধারের জন্য আসেন অগ্নিনির্বাপন বাহিনীর কর্মীরা।

এসময় উদ্ধার তৎপরতা দেখার জন্য পুরাতন লোহার সেতুতে লোকজন ভীড় জমাতে থাকেন। শতাধিক লোক একসঙ্গে সেতুর ওপর উঠায় এক পর্যায়ে সেতুর একটি অংশ ধসে যায়।

উদ্ধারকৃত একজনের লাশ চিহ্নিত করতে পেরেছে পুলিশ। বাসুভরাজ ম্যালনাভার নামের ৩০ বছর বয়সী নিহত ওই ব্যক্তি পেশায় ট্রাক চালক ছিলেন।

দুর্ঘটনার পর উদ্ধার তৎপরতা চালাতে নৌবাহিনীকে তলব করা হয়। শুক্রবার সকালে, টুইটারে নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নৌযান ও অন্যান্য যন্ত্রপাতিসহ নয়জন ডুবুরিকে তারা ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছেন।

গণপূর্ত মন্ত্রী রামকৃষ্ণ জানান, পদসেতুটি ব্যবহার না করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার শতাধিক লোক পাশের পুরোনো সেতু থেকে ওই সেতুতে লাফ দিয়ে নেমেছিল। তারা নিজেরাই এই বিপর্যয় ডেকে এনেছে।

আপনার মন্তব্য