ছবি: ইন্টারনেট

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার এতিম শিশুদের জন্য বিশেষ এক এলাকা গড়ে তুলেছে প্রতিবেশী তুরস্ক। সেখানে ওই শিশুদের থাকা-খাওয়া ও পড়াশোনার ব্যবস্থা করা হবে। তুরস্ক ও কাতারের দুটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেছে এই অনাথ নিবাস। তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্ত শহর রেহানলিতে বৃহস্পতিবার এর উদ্বোধন করা হয়।

তুরস্কের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ৫৫টি বাড়ি নিয়ে গঠিত এই ‘অরফান সিটি’ বা এতিম নিবাস। এখানে ৯৯০টি শিশু আরাম-আয়েশে এবং পারিবারিক পরিবেশে থাকার সুযোগ পাবে। এখানে আছে দুটি প্রাথমিক ও দুটি মাধ্যমিক স্কুল, একটি মসজিদ, একটি মাঠসহ খেলাধুলার জন্য বড় খোলা জায়গা। দুই বছরের কম সময়ের মধ্যে এর নির্মাণকাজ শেষ করা হয়।

জাতিসংঘ শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) হিসাবে, সিরিয়ায় গত ৬ বছরের সংঘাতে ৬০ লাখ শিশু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ২৩ লাখের বেশি শিশু দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়ে উদ্বাস্তুর খাতায় নাম লিখিয়েছে।

তুরস্ক বর্তমানে স্কুলে পড়ার বয়সী আট লাখের বেশি সিরীয় শিশুর দেখভাল করছে। তাদের মাত্র ৬০ শতাংশ শিক্ষাবর্ষের শুরুতে স্কুলে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে। সিরিয়ার এতিম শিশু, বিশেষ করে দীর্ঘ যুদ্ধের বিভীষিকার কারণে মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত পথশিশুদের সাহায্য করতে ভূমিকা পালন করবে এই এতিমদের নিবাস। এর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, প্রতিটি দোতলা বাড়িতে থাকবে ১৮টি শিশু। তাদের দেখভালের জন্য থাকবেন একজন তত্ত্বাবধায়ক।

advertisement

আপনার মন্তব্য