বাংলা ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

advertisement
ছবি: সংগৃহীত

গর্ভনিরোধক পিল বা ইসিপি হলো এমন এক ধরনের পদ্ধতি যা অরক্ষিত বা অনিরাপদ সহবাসের পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ব্যবহার করলে গর্ভে সন্তান আসার সম্ভাবনা প্রায় থাকে না। এই পিল সম্পর্কে বিবাহিত নারীরা বেশ পরিচিত। বিশেষ করে বিয়ের প্রথম দুই থেকে তিন বছর যারা সন্তান নিতে চান না, তারা ডাক্তারের পরামর্শে পিল খেয়ে খাকেন। কিন্তু পিল খাওয়ার ক্ষেত্রে নারীদের অনেক বিষয় জানা প্রয়োজন। কিছু কিছু সময় রয়েছে যে সময়গুলোতে পিল খাওয়া মোটেই ঠিক নয়। অনেক নারী রয়েছেন যাদের ক্যান্সার, যকৃতের অসুক, হৃদরোগ, অস্বাভাবিক রক্তক্ষরণসহ বিভিন্ন সমস্যা রয়েছে। তাদের ক্ষেত্রে পিল খেতে নিষেধ করেন চিকিৎসকরা।

আসুন জেনে নেই যে অবস্থায় জন্মবিরতিকরণ পিল খাওয়া হতে পারে বিপত্তি-

হৃদরোগ

হৃদরোগে জন্মবিরতিকরণ পিল নিষিদ্ধ বলে চিকিৎসকরা মনে করেন। কারণ স্ট্রোক, হার্টে বা আর্টারিতে কোনো ব্লক থাকলে হৃদরোগের চিকিৎসা নেয়ার সময় অবশ্যই ডাক্তারকে জানাতে হবে।

ক্যান্সার

স্তন কিংবা যৌনাঙ্গের ক্যান্সারের রোগীদের ক্ষেত্রে জন্মবিরতিকরণ পিল খেলে হতে পারে বিপত্তি। কারণ ইস্ট্রোজেন ও প্রোজেস্টেরন সমন্বিত পিল ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়।

চল্লিশোর্ধ্ব নারী

জন্মবিরতিকরণ পিল মূলত তরুণীদের জন্য উপযোগী। তাই চল্লিশোর্ধ্ব নারী যদি জন্মনিয়ন্ত্রণে জন্য পিল খেতে চান তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। চল্লিশোর্ধ্ব নারীদের শরীরে হরমোনের নানা ধরনের পরিবর্তন আসে। এছাড়া হাড়ক্ষয় ও হৃদরোগের ঝুঁকিও বাড়ে।

যকৃতের অসুখ

কোনো নারীর যদি লিভারজনিত কোনো অসুখ থাকে তার জন্য পিল খাওয়া ঠিক নয়।এছাড়া পূর্বে হেপাটাইটিস বি বা সি ও অপারেশন হওয়ার কোনো ইতিহাস থাকলে তা অবশ্যই ডাক্তারকে জানান।

অস্বাভাবিক রক্তক্ষরণ

যদি আপনার যোনিপথে অস্বাভাবিক রক্তক্ষরণ বা রক্তস্রাব হয়, এক্ষেত্রে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। চিকিৎসা হওয়ার আগ পর্যন্ত জন্মবিরতিকরণ পিল খাওয়া অনুচিত।

advertisement

আপনার মন্তব্য