বিনোদন ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

সালমান খান। ছবি: সংগৃহীত

বলিউডের তারকা অভিনেতা সালমান খানের শ্যুটিং সেটে আগ্নেয়াস্ত্রসহ কয়েকজন অজ্ঞাত ব্যক্তি ঢুকে পরেছিল। এসময় সালমানকে হত্যা চেষ্টা করা হয় বলে ধারনা করা হচ্ছে। 

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, মঙ্গলবার ‘রেস-৩’ সিনেমার শুটিং চলাকালে আগ্নেয়াস্ত্রসহ কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি সেটের মধ্যে ঢুকে পড়ে। পরে পুলিশ ও সালমানের দেহরক্ষী টিম তাকে নিরাপদে বাড়িতে নিয়ে যায়।

তবে সেটে পুলিশ পৌঁছানোর পর অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। নিরাপত্তাব্যবস্থার মধ্যেও শুটিং সেটে তারা কীভাবে ঢুকল এবং পরে কোথায় তারা গা ঢাকা দিল সেই বিষয়েও পুলিশ নিশ্চিত করে কিছু জানায়নি।

এদিকে নিরাপত্তারক্ষী ছাড়া সালমানকে সাইকেলে করে যত্রতত্র ঘুরে বেড়াতে নিষেধ করেছে পুলিশ। এ ছাড়া তার অবস্থান নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিছু না জানাতেও তাকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

গত ৪ জানুয়ারি পাঞ্জাবের কুখ্যাত অপরাধী লরেন্স বিষ্ণোই যোধপুরের আদালত চত্বরে সালমানকে প্রাণে মারার হুমকি দেন।

আদালতের শুনানি শেষে বেরোনোর সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, এই যোধপুরেই সালমানকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে। তখন সে জানবে আমাদের আসল পরিচয়।

সালমানের সঙ্গে লরেন্সের বিরোধের সূত্রপাত ১৯৯৮ সালে কৃষ্ণসার হত্যার ঘটনা কেন্দ্র করে। রাজস্থানের বিষ্ণই সম্প্রদায়ের মানুষ কৃষ্ণসার হরিণকে পূজা করে। এর সঙ্গে তাদের ধর্মীয় ভাবাবেগ জড়িয়ে রয়েছে। সে কারণেই এ হুমকি এবং পরবর্তী সময় শুটিং সেটে হামলার চেষ্টা হতে পারে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

সূত্র: এনডিটিভি

আপনার মন্তব্য

Daraz Bangla New Year
advertisement

advertisement
advertisement