নিজস্ব প্রতিবেদক

অন্যকে জানাতে পারেন:

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

মানুষের সব কাজ এখন অনলাইনে করা সম্ভব

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রযুক্তির বিকাশ ঘটায় মানুষের কষ্ট কমে যাচ্ছে। এখন মানুষের সব কাজ অনলাইনে করা সম্ভব হচ্ছে। 

আজ বুধবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে (বিআইসিসি) তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবচেয়ে বড় আয়োজন ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী রোবট মানব সোফিয়ার সঙ্গে সরাসরি কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল বাংলাদেশ, এই কথা কেউ আর না বলতে পারবে না। মানুষের সব কাজ এখন অনলাইনে করা সম্ভব হচ্ছে। এখন কোরবানির পশুও অনলাইনে কেনা যাচ্ছে। ২০২১ সালের মধ্যে আমরা পাচ্ছি ডিজিটাল বাংলাদেশ। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তরিত হব বাংলাদেশ।’  

‘মানুষের কষ্ট কমে যাচ্ছে, প্রযুক্তিই তা করে দিচ্ছে। এখন ফোনে সবধরনের সেবা মিলছে। দেশে থ্রিজি চালু আছে, ফোরজিও খুব দ্রুত চালু হয়ে যাবে। আমাদের লক্ষ্য দেশের মানুষ উন্নত জীবন যাবন করবে। এখন রিকশাওয়ালা থেকে শুরু করে সর্বস্তরের মানুষ ফোন ব্যবহার করছে।’

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘বন্ধুবন্ধু স্যাটেলাইট খুব তারাতারি চালু হবে। তথপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে শিল্পবিল্পব ঘটছে। তরুণরাই আমাদের সম্পদ, তারা আমাদের বোঝা না।  ৫০টা দেশে আমরা সফটওয়্যার রপ্তানি করছি। ২০১৮ সালের মধ্যে এক বিলিয়র ডলার সফটওয়্যার রপ্তানি করা হবে, ২০২১ সালে মধ্যে তা পাঁচ বিলিয়ন ছাড়াবে। প্রত্যেকটা জেলায় হাই-টেক পার্ক গড়া হবে। ১০টা ভাষা শেখার জন্য অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে। বিশ্বে ফ্রিল্যান্সারদের সংখ্যায় আমরা দ্বিতীয়, আশা করছি আমারা প্রথম হবো।’

অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘৪০ শতাংশ সেবা অনলাইনে দেওয়া হচ্ছে, ২০২১ সালে ৯০ শতাংশ সেবা অনলাইনে মিলবে। ২০২১ সালের মধ্যে আমরা হার্ডওয়্যার রপ্তানি করবো। ২০২১ সাল নাগাত আমরা সোফিয়ার মতো রোবট তৈরি করতে চাই। নতুন নতুন আবিষ্কার করবো। প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে বিশ্বের বুকে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে উঠবো।’

এ সময় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরেমশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর সভাপতি মোস্তফা জব্বার বলেন, ‘সোফিয়াকে দেখার জন্য আমরা তৈরি না, আমরা সোফিয়া তৈরি করা যুগে চলে এসেছি। আমরা ৮০টি দেশে সফটওয়্যার রপ্তানি করছি। দেশে এখন কম্পিউটার তৈরি হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ইমরান আহমদ, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী,  সরকারি-বেসরকারি খাতের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা। 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আয়োজনে পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে চার দিনব্যাপী এই তথ্যপ্রযুক্তি মেলা।  

আপনার মন্তব্য

advertisement